×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

দাঁতনে বাজি বিস্ফোরণ, উড়ল ঘরের চাল, আহত ৩ জন

নিজস্ব সংবাদদাতা
দাঁতন ১৬ নভেম্বর ২০২০ ২০:০৮
বাজি বিস্ফোরণে বাড়ির চাল উড়ে গিয়েছে। নিজস্ব চিত্র।

বাজি বিস্ফোরণে বাড়ির চাল উড়ে গিয়েছে। নিজস্ব চিত্র।

কালী পূজার পরে বাজি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটল দাঁতন থানার খণ্ডরুই গ্রামে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওইএলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সোমবার সন্ধ্যায় বিস্ফোরণ ঘটে। সেই বিস্ফোরণে উড়ে গিয়েছে একটি একচালা ঘরের চাল। এই ঘটনায় আহত হয়েছেন তিন জন। ঘটনাস্থল থেকেই রিয়াজেদ মল্লিক ওরফে টিঙ্কু নামে এক জনকে ধরে ফেলেন স্থানীয়রা। তাঁকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। বিস্ফোরণে আহত তিন জনকে উদ্ধার করে দাঁতন গ্রামীণ হাসপাতালে পাঠান স্থানীয় বাসিন্দারা। আহত অবস্থায় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে টিঙ্কুকেও।

এই ঘটনা নিয়ে রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। ওই এলাকায় বুধবার তৃণমূলের একটি মিছিল হওয়ার কথা রয়েছে। বিজেপির অভিযোগ, টিঙ্কু তৃণমূলের সমর্থক। এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টির জন্য বোমা বাঁধতে গিয়ে এই ঘটনা ঘটেছে। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূলের ব্লক সভাপতি শৈবাল গিরি। তিনি বলেন, “যাঁরা আহত হয়েছেল বা যাঁর বাড়িতে ঘটনাটি ঘটেছে তার সঙ্গে তৃণমূল কোন ভাবেই জড়িত নয়। তা ছাড়া তাঁরা কেউ তৃণমূল কর্মী নন, তৃণমূলের নামে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।” আহত টিঙ্কুর দাবি, যে বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটেছে সেটা তার নয়
তৃণমূল বিধায়ক বিক্রম প্রধান বলেন, “কলকাতায় রয়েছি, শুনেছি এ রকম একটা ঘটনা ঘটেছে। কয়েক জন আহত হয়েছেন। পুলিশকে বিষয়টি দেখতে বলেছি।” অন্য দিকে, বিজেপির জেলা সভাপতি শমিত কুমার দাশ বলেন, “এটা তৃনমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করার জন্য বোমা বাঁধছিল, তাতেই ঘটনা ঘটেছে।”

Advertisement

তৃণমূলের জেলা সভাপতি অজিত মাইতি বলেন, “দাঁতন ২ ব্লকের রতনপুর গ্রামে বিজেপির লোকেরা বোমা মেরেছে এক তৃণমূল কর্মীর বাড়িতে। তাতে ৫ জন আহত হয়েছেন। তাদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বিজেপি ভয় পেয়ে চোরাগুপ্তা আক্রমণ করেছে। এলাকায় গণ আন্দোলনে নামবে তৃণমূল।”

Advertisement