Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ধ্বংসস্তূপে উদ্ধার দুই শ্রমিকের দেহ

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত দুই শ্রমিকের নাম রাম সরেন (৪৯) এবং শুভদীপ প্রামাণিক (২৩)। বাড়ি গড়বেতায় আগরা পঞ্চায়েত এলাকার আউসাবান্দি গ্রামে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
২০ অগস্ট ২০২০ ০১:৫৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে দেহ। নিজস্ব চিত্র।

উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে দেহ। নিজস্ব চিত্র।

Popup Close

জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের পুরনো ভবন ভেঙে পড়েছিল মঙ্গলবার। সেই ধ্বংসস্তূপের মধ্যে থেকে দু’জন শ্রমিকের দেহ উদ্ধার করেছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী (এনডিআরএফ)। মঙ্গলবার গভীর রাতে ওই দু’টি দেহ উদ্ধার করেছে তারা।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত দুই শ্রমিকের নাম রাম সরেন (৪৯) এবং শুভদীপ প্রামাণিক (২৩)। বাড়ি গড়বেতায় আগরা পঞ্চায়েত এলাকার আউসাবান্দি গ্রামে। শুভদীপের বাবা ২০০৯ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ওই পঞ্চায়েতের সিপিএমের প্রধান ছিলেন। পুলিশ ময়না-তদন্তের জন্য দেহ দু’টি মেদিনীপুর মেডিক্যালের মর্গে পাঠিয়েছে। জেলার এক ভূমি আধিকারিক বলেন, ‘‘দুই শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনা দুঃখজনক।’’

স্থানীয় সূত্রে খবর, মঙ্গলবার দুপুরে পুরনো ভবনের ইতিউতি ২০-২২ জন শ্রমিক কাজ করছিলেন। তাঁদের মধ্যে কয়েকজন জানলা-দরজা খুলছিলেন। তখনই আচমকা ভবনটির একাংশের ছাদ ভেঙে জখম হন দু’জন। স্থানীয়দের অনুমান, ঘটনার সময়ে বেরোনোর সুযোগই পাননি ওই দুই শ্রমিক। কিছু বোঝার আগেই তাঁদের উপরে ছাদের একাংশ ভেঙে পড়ে। তাঁদের মাথা থ্যাঁঁতলানো ছিল। দেহের বাকি অংশও ছিল ক্ষতবিক্ষত।

Advertisement

দুর্ঘটনার পরেই প্রত্যক্ষদর্শীরা দু’জন শ্রমিকের চাপা পড়ে থাকার আশঙ্কার কথা জানিয়েছিলেন। কারণ, অন্যরা সেখান থেকে বেরিয়ে এলেও দু’জন বেরোননি। দুর্ঘটনার পরে মাটি কাটার যন্ত্র এনে ক্ষতিগ্রস্ত অংশ ভেঙে ফেলা শুরু হয়। পুলিশ, দমকল উদ্ধারকার্যে হাত লাগায়। এনডিআরএফের একটি দল ঘাটালে রয়েছে। তাদের ডাকা হয়। কয়েক ঘণ্টা ধরে উদ্ধারকার্য চালানোর পর ধ্বংসস্তূপের নিচে দু’টি দেহের সন্ধান মেলে।

মঙ্গলবার দুপুরে বৃষ্টি চলাকালীন মেদিনীপুর শহরের কেরানিতলায় জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দফতরের পুরনো ভবন ভেঙে পড়েছিল। বছর কয়েক আগে পুরনো ভবনের পাশেই নতুন ভবন তৈরি হয়েছে। তবে পুরনো ভবনে দফতরের কিছু কাগজপত্র, নথিপত্র রয়ে গিয়েছিল। সে সব সরানোর কাজ চলছিল। পুরনো ভবনটি পুরো ভেঙে ফেলারও পরিকল্পনা ছিল। এর আগেও বেশ কয়েকবার ওই ভবনের ছাদের চাঙর খসে পড়েছে।

এ দিন মৃত দু’জনের বাড়িতে যান আগরা পঞ্চায়েতের বর্তমান প্রধান তৃণমূলের সোমাশ্রী মল্লিক, পঞ্চায়েত সদস্য তৃণমূল নেতা আজিম চৌধুরি-সহ অনেকে। দু’টি পরিবারের হাতেই পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে আর্থিক সাহায্য তুলে দেওয়া হয়।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement