×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩০ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

তথ্য লুকোচ্ছে মেডিক্যাল!

নিজস্ব সংবাদদাতা
মেদিনীপুর এবং গড়বেতা ১৭ মার্চ ২০২০ ০০:৪৭
ফাইল চিত্র

ফাইল চিত্র

করোনা সংক্রান্ত তথ্য লুকোনোর অভিযোগ উঠল মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বিরুদ্ধে। সোমবার বিদেশ ফেরত এক সন্দেহভাজনকে মেডিক্যালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগ, দিনভর সে নিয়ে লুকোছাপা করেছেন মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ। সন্দেহভাজন কেউ ভর্তি হয়েছেন বলেও মানতে চাননি কর্তৃপক্ষ।

মেদিনীপুর মেডিক্যালের অধ্যক্ষ পঞ্চানন কুণ্ডু বলেন, ‘‘আমি স্বাস্থ্য ভবনে বৈঠকে ছিলাম। এ ব্যাপারে কিছুই জানি না। কিছু হয়ে থাকলে সুপার বলতে পারবেন।’’ অন্যদিকে, হাসপাতালের সুপার তন্ময়কান্তি পাঁজা বলেন, ‘‘আমিও একটা বৈঠকে ছিলাম। হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে কেউ ভর্তি হয়েছেন, এমন কোনও খবর নেই। আমি কিছু জানিও না।’’ প্রশাসনের এক সূত্রে খবর, সোমবার সকালে মেডিক্যালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি হয়েছেন এক যুবক। বছর বত্রিশের ওই যুবক সৌদি আরব থেকে সম্প্রতি দেশে ফেরেন। তিনি দাঁতনের বাসিন্দা। উল্লেখ্য, এক সময়ে ডেঙ্গি সংক্রান্ত তথ্যও লুকোনোর চেষ্টা করতেন মেডিক্যাল কর্তৃপক্ষ। এখন করোনাভাইরাসের ক্ষেত্রেও সেই চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ।

এখন পশ্চিম মেদিনীপুরে ১২ জন ‘হোম আইসোলেশনে’ রয়েছেন। সব মিলিয়ে নজরদারি চলেছে ২৮ জনের উপরে এবং তাঁরা প্রত্যেকেই বিদেশ ফেরত। অন্যদিকে, জাপান ফেরত গড়বেতার সেই অসুস্থ যুবকের শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষ্মণ পাওয়া গেল না। কয়েকদিন আগেই ২৮ বছরের ওই যুবক জাপান থেকে গড়বেতায় ফেরেন। যুবকের গলার লালার নমুনা সংগ্রহ করে কলকাতার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। সোমবারই তার রিপোর্ট এসেছে জেলা স্বাস্থ্য দফতরে। রিপোর্টে করোনাভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া যায়নি বলে জানা গিয়েছে। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক গিরিশচন্দ্র বেরা বলেন, ‘‘গড়বেতার ওই যুবকের শরীরে করোনাভাইরাসের কোনও লক্ষ্মণ পাওয়া যায়নি, রিপোর্ট নেগেটিভ।’’

Advertisement
Advertisement