Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

মৃত পরিযায়ী শ্রমিক করোনা ‘পজ়িটিভ’ 

নিজস্ব সংবাদদাতা
মেদিনীপুর ০৯ এপ্রিল ২০২১ ০৬:০২
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ক্রমে ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণ। এ বার তাতে মৃত্যু হল এক পরিযায়ী শ্রমিকের।

বছর ছত্রিশের ওই যুবক ঘাটালের বাসিন্দা। জ্বর নিয়ে ঘাটাল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। বুধবার সকালে সেখান থেকে তাঁকে মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। মেডিক্যাল সূত্রে খবর, মেদিনীপুরে আসার পথেই ওই পরিযায়ী শ্রমিকের মৃত্যু হয়। জ্বর থাকায় মৃতের করোনা পরীক্ষা করা হয়। বুধবার রাতেই সেই রিপোর্ট আসে। তাতে জানা গিয়েছে, তিনি করোনায় সংক্রমিত ছিলেন। মেদিনীপুর মেডিক্যালের অধ্যক্ষ পঞ্চানন কুণ্ডু মানছেন, ‘‘ওই যুবককে ঘাটাল থেকে মেদিনীপুরে রেফার করা হয়েছিল। মেদিনীপুরে আসার পথেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর পর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষা করা হয়েছিল। রিপোর্ট পজ়িটিভ এসেছে। ওই যুবকের মৃত্যু করোনাতেই হয়েছে।’’

ওই যুবক কর্মসূত্রে ছত্তীসগঢ় থাকতেন। সেখানে সোনার কাজ করতেন। সম্প্রতি সেখান থেকে ঘাটালের বাড়িতে ফিরেছিলেন। ওই যুবক কী জ্বর নিয়েই বাড়ি ফিরেছিলেন, না বাড়িতে এসে জ্বর হয়েছিল? মেডিক্যালের অধ্যক্ষ বলেন, ‘‘জ্বর নিয়েই ফিরেছিলেন, না এসে জ্বর হয়েছে, সেটা ঠিক জানি না। খোঁজ নিতে হবে। তবে জ্বর নিয়ে ঘাটাল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।’’

Advertisement

ওই যুবককে যখন মেডিক্যালে আনা হয়েছিল ততক্ষণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। তাই সবদিক খতিয়ে দেখে মৃতদেহের ময়না-তদন্ত করা হয়েছে। অধ্যক্ষ জানাচ্ছেন, যাবতীয় সতর্কতা অবলম্বন করেই দেহের ময়না-তদন্ত করা হয়েছে। দিন কয়েক আগেও মেডিক্যালে এক রোগীর মৃত্যু হয়েছে। ওই রোগীও করোনায় সংক্রমিত ছিলেন।

পশ্চিম মেদিনীপুরে করোনা সংক্রমণ ক্রমে বেড়েই চলেছে। বুধবারও নতুন করে ৩০ জন করোনা সংক্রমিতের হদিস মিলেছে। জানা যাচ্ছে, তাঁদের মধ্যে আরটিপিসিআরে ২০ জনের পরীক্ষা হয়েছে। অ্যান্টিজেন টেস্ট হয়েছে ৩ জনের। ট্রুন্যাটে ৭ জনের পরীক্ষা হয়েছে। স্কুলের এক শিক্ষাকর্মী করোনা সংক্রমিত হওয়ায় বিদ্যাসাগর বিদ্যাপীঠ (বালিকা) স্কুল বন্ধ রাখা হয়েছে। স্কুলের গেটে আপাতত স্কুল বন্ধ থাকার বিজ্ঞপ্তি ঝুলিয়ে দিয়েছেন স্কুল-কর্তৃপক্ষ।

ফের সচেতনতামূলক প্রচারে নেমেছে মেদিনীপুর পুরসভা। করোনাবিধি মেনে চলার অনুরোধ জানিয়ে শহর জুড়ে মাইকিং করা হচ্ছে। প্রতিষেধক নেওয়ার অনুরোধ জানানো হচ্ছে। মেদিনীপুরের (সদর) মহকুমাশাসক নীলাঞ্জন ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘প্রচারে আরও জোর দেওয়া হচ্ছে। সকলকে সচেতন করা হচ্ছে।’’

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement