×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

পণের টাকা দিতে না পারায় স্ত্রীকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ কেশপুরে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কেশপুর৩০ নভেম্বর ২০২০ ১৮:৩৯
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

পণের টাকা না পেয়ে এক তরুণীকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠল শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর থানার গোবিন্দপুর গ্রামে। মৃতার নাম সঙ্গীতা দোলই (খাঁ)। বয়স ১৯ বছর।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই তরুণী গত বছর বাড়ি থেকে পালিয়ে গোবিন্দপুর গ্রামের মনোরঞ্জন খাঁয়ের সঙ্গে বিয়ে করেছিলেন। তরুণীর বাবার অভিয়োগ, বিয়ের কয়েক মাস পর থেকেই টাকা চেয়ে তাঁর উপর শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতন করতে শুরু করেন তাঁর শ্বশুরবাড়ির লোকজন। বারবারই তরুণীকে টাকা এবং গয়নার জন্য চাপ দিতে থাকেন তাঁরা। বাধ্য হয়ে বেশি কিছু দিন তরুণীকে বাড়ি নিয়ে চলে এসেছিলেন তাঁর বাবা। সম্প্রতি তাঁকে ফের শ্বশুরবাড়ি পাঠিয়ে দেন।

তরুণীর বাবার অভিযোগ, তার পর থেকেই মেয়ের সঙ্গে তেমন যোগাযোগ ছিল না। মেয়ে ফোন করলে পাশে শ্বশুরবাড়ির লোকজন দাঁড়িয়ে থাকতেন যাতে বেফাঁস কিছু না বলে দেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: কাল থেকেই ‘দুয়ারে সরকার’, রাজ্য জুড়ে খোলা হচ্ছে ২০ হাজার শিবির

রবিবার রাত্রি ৯টা নাগাদ থানা থেকে খবর আসে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে তাদের মেয়ে। মারধর করে তাঁর মেয়েকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। যদিও মনোরঞ্জনের পরিবারের কোনও মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

Advertisement