Advertisement
০৯ ডিসেম্বর ২০২২
medinipur medical college

দ্বিতীর ক্যাম্পাস তৈরির জমি পেল মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি জানানোর পরে তাঁরই নির্দেশে দ্বিতীয় ক্যাম্পাস তৈরির প্রস্তুতি শুরু হয়।

দ্বিতীয় ক্য়াম্পাসের জমির কাগজ পেল মেদিনীপুর মেডিক্য়াল কলেজ।

দ্বিতীয় ক্য়াম্পাসের জমির কাগজ পেল মেদিনীপুর মেডিক্য়াল কলেজ। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মেদিনীপুর শেষ আপডেট: ০৭ জুলাই ২০২১ ২৩:০৬
Share: Save:

মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস তৈরির জন্য জমি হস্তান্তর হল বুধবার। জেলাশাসকের কনফারেন্স রুমে জমির কাগজপত্র মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ অধ্যক্ষ পঞ্চানন কুন্ডুর হাতে তুলে দেন রাজ্যের স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ দফতরের সচিব সৌমিত্র মোহন। সঙ্গে ছিলেন পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসক রশ্মি কমল।

Advertisement

ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অতিরিক্ত জেলাশাসক তুষার শিংলা হাজির ছিলেন বুধবার। রশ্মি বলেন, ‘‘নতুন সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের ক্যাম্পাস তৈরির জন্য মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষের হাতে জমির কাগজ তুলে দেওয়া হয়েছে।’’ তুষার বলেন, ‘‘মোট ১৪.৪৯০১ একর জমি হস্তান্তর করা হয়েছে মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষকে। সেখানে সুপার স্পেশালিটি ক্যাম্পাস তৈরি করা হবে। মেদিনীপুর শহর থেকে প্রায় পাঁচ কিমি দূরে মুরাডাঙ্গা এলাকায় তৈরি হবে মেডিক্যাল কলেজের দ্বিতীয় ক্যাম্পাস।’’

মেদিনীপুর মেডিক্যাল কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে, এমবিবিএস পঠনপাঠনের জন্য ইন্টার্নশিপ-সহ সাড়ে ৫ বছরের কোর্স রয়েছে ক্যাম্পাসে। প্রতি বছর ২০০টি করে আসন রয়েছে। তা ছাড়া পিজি (স্নাতকোত্তর) কোর্সের জন্য ৯টি বিষয়ে ৬৬ জন পড়ুয়া রয়েছেন। মেডিক্যাল কলেজে একাধিক ল্যাবরেটরি রয়েছে। হাসপাতালে সমস্ত ওয়ার্ড থাকলেও আরও কিছু ওয়ার্ড খোলার পরিকল্পনা করেছিলেন মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ। সেই পরিকল্পনা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানানোর পরে তাঁরই নির্দেশে দ্বিতীয় ক্যাম্পাস করার জন্য প্রস্তুতি শুরু হয়।

পঞ্চানন বলেন, ‘‘প্রায় ১৫ একর জমি পাওয়া গিয়েছে। সেখানে সীমানা প্রাচীর দেওয়ার কাজ শুরু হবে। সম্প্রতি ওই এলাকা পরিদর্শনও করেছি আমরা। সুপার স্পেশালিটি ক্যাম্পাসে পঠনপাঠনের পাশাপাশি কার্ডিয়াক, ট্রমা, রেডিও থেরাপি, ইউরোলজি, নিউরোলজি, বার্ন-সহ বেশ কিছু ইউনিট খোলার পরিকল্পনা রয়েছে। নতুন পরিষেবা চালু হলে উপকৃত হবেন জেলার মানুষ।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.