Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Suvendu Adhikari: নন্দীগ্রামের সব মন্দিরে বসবে সিসি ক্যামেরা, মাইকে বাজবে হরিনাম সংকীর্তন: শুভেন্দু

বুধবার নিজের বিধানসভা কেন্দ্র নন্দীগ্রামে প্রজাতন্ত্র দিবসের কর্মসূচিতে গিয়ে এই ঘোষণা করেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
নন্দীগ্রাম ২৬ জানুয়ারি ২০২২ ১৬:৫৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
নিজের বিধানসভা এলাকার সব মন্দিরে এ বার সিসি ক্যামেরা বসানোর ঘোষণা করলেন শুভেন্দু অধিকারী।

নিজের বিধানসভা এলাকার সব মন্দিরে এ বার সিসি ক্যামেরা বসানোর ঘোষণা করলেন শুভেন্দু অধিকারী।

Popup Close

পূর্ব মেদিনীপুরের নন্দীগ্রাম থেকে বিধানসভা ভোটে জিতেছিলেন তিনি। নিজের বিধানসভা এলাকার সব মন্দিরে এ বার সিসি ক্যামেরা বসানোর ঘোষণা করলেন শুভেন্দু অধিকারী। মন্দিরে নাশকতামূলক কাজকর্ম রুখতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। শুধু সিসি ক্যামেরা বসানোই নয়, মাইকে বাজানো হবে হরিনাম সংকীর্তন, ভাগবত কথা ও বিশ্বনাথের আরাধনা। তার জন্য মন্দিরে মন্দিরে মাইক বিতরণ শুরু হয়েছে বলেও জানিয়েছেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক।

বুধবার নিজের বিধানসভা কেন্দ্রে প্রজাতন্ত্র দিবসের কর্মসূচিতে গিয়ে এ সব ঘোষণা করার পাশাপাশি রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অভিযোগ করেন, প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে রেড রোডে আয়োজিত রাজ্য সরকারের অনুষ্ঠানে ডাক পাননি তিনি। রেড রোডে প্রজাতন্ত্র দিবসের উদ্‌যাপনে ডাক না পাওয়া নিয়ে শুভেন্দু বলেন, ‘‘স্বাধীনতার পর প্রথম বার কোনও বিরোধী দলনেতা রেড রোডের অনুষ্ঠানে ডাক পেলেন না। গত বারও আব্দুল মান্নান ডাক পেয়েছিলেন। আমি মমতাকে হারিয়েছি বলেই অনুষ্ঠানে আমাকে ডাকা হল না।’’

Advertisement

বুধবার শুভেন্দুর উপস্থিতিতেই নন্দীগ্রামের ১০টি মন্দিরে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়। বিধায়ক জানান, আগামী ছ’মাসের মধ্যে নন্দীগ্রামের সমস্ত মন্দিরে সিসি ক্যামেরা লাগানো হবে। তিনি বলেন, ‘‘নন্দীগ্রামে নানা ধর্মের মানুষের বাস। যার ফলে মন্দিরে নাশকতামূলক কাজকর্ম হতে পারে। দুষ্কৃতীরা যাতে অশান্তি ছড়ানোর সুযোগ না পায়, তার জন্যই আগাম সতর্কতা হিসেবে এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।’’

শুভেন্দু আরও বলেন, ‘‘এখন থেকে নন্দীগ্রামের মন্দিরে মন্দিরে সকাল-বিকেল শব্দদূষণ না করে মাইকে হরিনাম সংকীর্তন, ভাগবত কথা, বাবা বিশ্বনাথের আরাধনার গান বাজবে।’’ নিজেকে সনাতন ধর্মের সেবক দাবি করে এলাকার ২০ জনকে খোল বিতরণ করেন শুভেন্দু। তাঁর কথায়, ‘‘খোল নিয়ে সনাতন ধর্মের প্রচার করবেন এলাকাবাসী।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement