×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মে ২০২১ ই-পেপার

বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের পাশে পঞ্চায়েত

নিজস্ব সংবাদদাতা
মহিষাদল ২৮ মার্চ ২০২০ ০০:৫৬
দেওয়া হচ্ছে চাল-আলু।

দেওয়া হচ্ছে চাল-আলু।

মহকুমা সদর হলদিয়ায় ‘স্পর্শ’ প্রকল্পে পুলিশ আগেই বয়স্কদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এ বার লকডাউনের সময়ে মহিষাদলে বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের পাশে দাঁড়াল গ্রাম পঞ্চায়েত।

মহিষাদল ব্লকের ইটামগরা-২ গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে শুক্রবার এক সপ্তাহের খাদ্য দেওয়া হল এলাকার বয়স্ক দম্পতিদের। এ দিন বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাঁদের হাতে এক সপ্তাহের খাবারের সামগ্রী তুলে দেন পঞ্চায়েতের লোকেরা। করোনাভাইরাসের সংক্রমণের জেরে দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া তথ্য অনুসারে, করোনায় বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের মৃত্যুর হার অনেক বেশি। তাই ৬৫ বছরের ঊর্ধ্বে ব্যক্তিদের বাড়িতেই থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে গ্রামীণ এলাকার বয়স্কদের সমস্যা হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রশাসন। তাই বয়স্কদের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে ইটামগরা ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েত।

পঞ্চায়েত সূত্রে খবর, এ দিন ৪২ জনকে ৫ কিলোগ্রাম চাল, ২০০ গ্রাম ডাল, নুন, হলুদ, লঙ্কা, আনাজ এবং সাবান দেওয়া হয়েছে। যাঁরা বয়সের কারণে অথর্ব হয়ে পড়েছেন, যাঁদের রান্না করে খাওয়ার মতো ক্ষমতা নেই, তাঁদের জন্যও ব্যবস্থা করেছে পঞ্চায়েত। স্ব-সহায়ক দলের মহিলাদের দিয়ে রান্না করিয়ে তাঁদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কাপাসএড়া গ্রামের বাসিন্দা সত্তরোর্ধ্ব বৃদ্ধ মন্মথ দাস বলেন, ‘‘পঞ্চায়েতের এই উদ্যোগ প্রশংসনীয়।’’

Advertisement

পঞ্চায়েতের উপপ্রধান রামকৃষ্ণ দাস বলেন, ‘‘করোনায় বয়স্কদের আক্রান্তের হার বেশি। তাই আমরা চাই আমাদের এলাকায় কোনও বয়স্ক মানুষ যেন নিজের ঘর ছেড়ে না বের হন। ওঁদের যাতে খাদ্য সঙ্কট না হয়, সেই জন্যই আমাদের এই উদ্যো

Advertisement