×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

চলতি মাসেই শুরু সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ

নিজস্ব সংবাদদাতা
দাদনপাত্রবাড়২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০২:১৯
সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রস্তাবিত জায়গা। নিজস্ব চিত্র

সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের প্রস্তাবিত জায়গা। নিজস্ব চিত্র

জার্মান বিনিয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তোলার কাজ চলতি মাসেই শুরু করতে মরিয়া রাজ্য সরকার।পূর্ব মেদিনীপুর জেলার রামনগর-২ ব্লকের দাদনপাত্রবাড় এলাকায় প্রস্তাবিত সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে উঠবে বলে প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়েছে। আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে ২০০ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন এই সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের শিলান্যাস করা হবে। ওইদিন রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায় সহ বিনিয়োগকারী সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন।

২০১৯ সালের ডিসেম্বর মাসে দিঘায় ‘বেঙ্গল বিজনেস সামিট’-এ মন্দারমণি উপকূল সংলগ্ন দাদনপাত্রবাড়ে সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তোলা হবে বলে ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১২০০ কোটি টাকার এই প্রকল্পে জার্মানির কে এফ ডব্লিউ নামে একটি সংস্থা এক হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে এবং বাকি ২০০ কোটি টাকা রাজ্য সরকার লগ্নি করবে  বলে জানানো হয়েছিল।

উল্লেখ্য, দাদনপাত্রবাড় এলাকায় ব্রিটিশ আমলে ‘বেঙ্গল সল্ট’ নামে একটি লবণ তৈরির কারখানা গড়ে উঠেছিল। পরবর্তীকালে নানা সমস্যার কারণে ওই কারখানা বন্ধ হয়ে যায়। ওই পরিত্যক্ত জমিতে আগে বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তুলতে চেয়েছিল বর্তমান রাজ্য সরকার। যদিও পরে সেই পরিকল্পনা বাতিল হয়। এর পরে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার পর সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে সক্রিয় হয় জেলা প্রশাসন। রামনগর-২ ব্লকের দাদনপাত্রবাড়, মানিয়া এবং দক্ষিণ পুরুষোত্তমপুর মৌজায় প্রয়োজনীয় জমি জরিপের কাজ শেষ হয়ে গিয়েছিল গত বছর। তবে বিকল্প কর্মসংস্থান এবং বকেয়া পাওনা মেটানোর দাবিতে সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তোলার ব্যাপারে প্রাথমিকভাবে আপত্তি জানিয়েছিল স্থানীয় মৎস্যজীবী এবং বেঙ্গল সল্ট কারখানার কর্মহীন শ্রমিকেরা।

Advertisement

জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, পরে ওই লবণ কারখানার কর্মচারী এবং মৎস্যজীবীদের সঙ্গে আলোচনায় সমস্যা মিটে গিয়েছে। প্রাথমিকভাবে ১২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে উঠবে। দ্বিতীয় পর্বে ৭৫ মেগাওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তোলা হবে। শিলান্যাস অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়,  রাজ্য বিদ্যুৎ বণ্টন সংস্থা এবং জার্মান ডেভলপমেন্ট ব্যাঙ্ক কেএফডব্লিউর প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন বলে জানা গিয়েছে। কয়েকদিন আগেই দিঘায় দেশীয় বেসরকারি সংস্থা রিলায়েন্স জিওর উদ্যোগে মোবাইল ল্যান্ডিং স্টেশন গড়ে উঠবে বলে ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এ বার প্রস্তাবিত সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজ শুরু হওয়ার খবরে খুশি এলাকার বাসিন্দারা।

জেলাশাসক পার্থ ঘোষ বলেন, ‘‘সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে তোলার কাজ ধাপে ধাপে অনেকটাই এগিয়েছে।’’ স্থানীয় বিধায়ক অখিল গিরি বলেন, ‘‘আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর প্রস্তাবিত সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্পের শিলান্যাস হবে। বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় সহ অনেকে থাকবেন।"যদিও জার্মান বিনিয়োগকারী সংস্থার সঙ্গে রাজ্য সরকারের এই যৌথ উদ্যোগ নিয়ে বিজেপির কাঁথি সাংগঠনিক জেলা সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী বলেন, ‘‘বিধানসভা ভোটের আগে মানুষকে ভাঁওতা দেওয়া হচ্ছে। প্রথমবার ক্ষমতায় থাকাকালীন বায়ু বিদ্যুৎ প্রকল্পের নাম তুলে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসেছিল তৃণমূল। সেই প্রকল্প ব্যর্থ হয়েছে। ফের সৌর বিদ্যুতের নাম করে সাধারণ মানুষকে ঠকিয়ে তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসতে চাইছেশাসক দল।’’

Advertisement