Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

এক মাসে পনেরো বার পথ অবরোধ, ভোগান্তি

গত এক মাসে মুর্শিদাবার জেলায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ডাকে পথ অবরোধ হয়েছে ১৫। তার মধ্যে গত ৪ জুন থেকে ৮ জুন পর্যন্ত এক টানা রাস্তা অবরোধও রয়েছে

নিজস্ব সংবাদদাতা
বহরমপুর ১৫ জুন ২০১৫ ০৩:০৫

গত এক মাসে মুর্শিদাবার জেলায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ডাকে পথ অবরোধ হয়েছে ১৫। তার মধ্যে গত ৪ জুন থেকে ৮ জুন পর্যন্ত এক টানা রাস্তা অবরোধও রয়েছে। কখনও ডান, কখনও বামের ডাকা পথ অবরোধে কিন্তু চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষকেই। কোথাও ঘণ্টা খানেক, কোথাও দেড় ঘণ্টা, কোথাও আবার দু’ঘন্টারও বেশি সময় ধরে রাস্তা অবরোধে দুর্ভোগের মুখে পড়তে হয়েছে সাধারণ মানুষকে। কিন্তু রাজনীতির কারবারিরা তা বুঝলে তো। বিভিন্ন দলের নেতৃত্বের দাবি সাধারণ মানুষের সমর্থন নিয়েই তো রাস্তা অবরোধ!

জেলা কংগ্রেসের মুখপাত্র অশোক দাস বলেন, ‘‘সাধারণ মানুষের কাছে আবেদন জানিয়ে ওই অবরোধ করা হয়েছে। আমাদের অবরোধে সাধারণ মানুষ সমর্থন করেছে বলেই তা সফল হয়েছে।’’ অন্য দিকে, সিপিএমের জেলা সম্পাদক মৃগাঙ্ক ভট্টাচার্য জানান, ‘‘ফসলের দাম না পেয়ে চাষির আত্মহত্যার ঘটনায় সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য পথ অবরোধ হয়েছে। এতে সাধারণ মানুষের কষ্ট হয় জানি। কিন্তু তাঁদের সমর্থন ছাড়া ওই পথ অবরোধ সফলও হয় না।’’

তবে রাজনৈতিক নেতারা যতই অবরোধের পক্ষে সাধারণ মানুষের ‘সমর্থন’-এর কথা বলুন, সাধারণ মানুষের অভিজ্ঞতা কিন্তু উল্টো কথা বলে। বহরমপুরের প্রবীণ নাগরিক তথা অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক বিষাণ গুপ্ত বলেন, ‘‘অবরোধের রাজনীতি শেষ পর্যন্ত ভোগান্তি ছাড়া কিছুই উপহার দেয় না।’’ তাঁর কথায়, ‘‘যে কোনও ধর্মঘট বা অবরোধ জনস্বার্থ বিরোধী। এটা বন্ধ্যা রাজনীতি। অবিলম্বে অবরোধের রাজনীতি বন্ধ হওয়া দরকার।’’ শিক্ষক সৈয়দ তৌফিক বলেন, ‘‘প্রতিবাদ জানানোর বিভিন্ন পদ্ধতি রয়েছে। তার বদলে তুচ্ছ কারণে রাস্তা অবরোধ করে ভোগান্তির মধ্যে ঠেলে দেওয়া হয়।’’ নিত্যযাত্রী সংস্থার পক্ষে তৌসিফুল ইসলাম বলেন, ‘‘অবরোধের কবলে পড়ে প্রচণ্ড গরমে বাসের মধ্যে বয়স্ক মানুষ থেকে শিশুদের অসুস্থ হয়ে পড়তেও দেখেছি। তখন রাজনৈতিক দলগুলির বিরুদ্ধে ক্ষোভ জন্ম হয়।’’ তৃণমূলের জেলা সভাপতি মান্নান হোসেন বলেন, ‘‘অবরোধ করে সাধারণ মানুষকে যন্ত্রণা দেওয়ার অধিকার কোনও রাজনৈতিক দলের নেই। আসলে এই জেলায় পুলিশ এত দুর্বল যে এই ধরনের ঘটনা ঘটছে।’’

Advertisement

পুলিশ সুপার সি সুধাকর বলেন, ‘‘যে কোনও পথ অবরোধকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’’ কিন্তু অবরোধকারীদের বিরুদ্ধে কোন ধারায় এবং কতগুলি মামলা দায়ের হয়েছে, তার কোনও সদুত্তর অবশ্য তিনি দিতে পারেননি।

আরও পড়ুন

Advertisement