Advertisement
১৬ জুন ২০২৪
Palashipara

লিখিত অভিযোগ বিডিও-র, সরকারি কর্মীদের হেনস্থা, অভিযুক্ত তৃণমূলের নেতা

ব্লক সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার তেহট্ট-২ বিডিও অফিসে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহযোগিতায় বিশেষ ভাবে সক্ষম মানুষদের ট্রাই সাইকেল, হুইল চেয়ার প্রদানের কর্মসূচি চলছিল।

অভিযোগ জানান স্বয়ং বিডিও।

অভিযোগ জানান স্বয়ং বিডিও। ছবি সংগৃহীত।

নিজস্ব সংবাদদাতা
পলাশিপাড়া  শেষ আপডেট: ২৪ মার্চ ২০২৩ ০৬:৪৪
Share: Save:

সরকারি কর্মীকে গালিগালাজ, হুমকি এবং কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠল তেহট্ট-২ এর তৃণমূল ব্লক সহ-সভাপতি তথা বার্নিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য প্রণয় ঘোষ চৌধুরীর বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় বিডিও শুভ সিংহ রায় বুধবার পলাশিপাড়া থানায় প্রণয়ের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন ওই তৃণমূল নেতা।

ব্লক সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার তেহট্ট-২ বিডিও অফিসে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সহযোগিতায় বিশেষ ভাবে সক্ষম মানুষদের ট্রাই সাইকেল, হুইল চেয়ার প্রদানের কর্মসূচি চলছিল। সেই সময় বিডিও অফিসে যান প্রণয় ঘোষ চৌধুরী। ওই অনুষ্ঠানে প্রণয়ের পরিচিত পঞ্চানন ঘোষ নামে এক ব্যক্তি হুইল চেয়ার পেয়েছিলেন। কিন্তু তিনি তা বদলে ট্রাই সাইকেল দেওয়ার আবেদন জানিয়েছিলেন স্থানীয় নেতা প্রণয়কে। সেই আবেদনের কথা সংস্থার লোকেদের জানাতে গিয়েই তৈরি হয় সমস্যা।

ব্লক সূত্রের খবর, হুইল চেয়ার বদল করা যাবে না বলে জানানো হয় প্রণয়কে। এর পরই তিনি বিডিও অফিসের মধ্যে বিশৃঙ্খলা তৈরি করেন। সরকারি কর্মীদের গালিগালাজ, হুমকি দেওয়া শুরু করেন। বিডিওর অভিযোগ, ‘‘ওই পঞ্চায়েত সদস্যকে অনুষ্ঠানে ডাকা হয়নি। উনি গোলমাল পাকানোর জন্যই বিডিও অফিসে এসেছিলেন। সরকারি দফতরে ঢুকে সরকারি কর্মীকে খুনের হুমকি দিয়েছেন, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছেন।’’

ঘটনার কথা বিডিও তাঁর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানান। বুধবার বিকালে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বিডিও পলাশিপাড়া থানায় প্রণয় ঘোষ চৌধুরীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তবে ঘটনা অস্বীকার করে তৃণমূলের ব্লক সহ-সভাপতি প্রণয় দাবি করেন, তেহট্ট ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতির ডাকে তিনি বিডিও অফিসে গিয়েছিলেন। সভাপতির ঘরেই ছিলেন। পঞ্চানন ঘোষ সাহায্যের জন্য তাঁর কাছে যান। বিশেষ ভাবে সক্ষম ঐ ব্যক্তিকে সাহায্য করতেই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্তৃপক্ষের কাছে গিয়েছিলেন তিনি।

প্রণয়ের অভিযোগ, ‘‘সেই সময় মঞ্চে ছিলেন বিডিও। মঞ্চ থেকে বিডিও ওই সংস্থার সম্পাদককে ‘বাইরের লোকে’ সঙ্গে কথা বলতে বারণ করেন। এর প্রতিবাদ করলে বিডিও আমাকে অফিস থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন।’’ তাঁর বক্তব্য, “আমি জনপ্রতিনিধি, সরকারি জায়গায় সবাই যেতে পারে। তা বলে বিডিও কাউকে বার করে দিতে পারেন না। আর আমি কাউকে হুমকি দিইনি বা গালাগাল দিইনি। সব মিথ্যা অভিযোগ।” এসডিপিও (তেহট্ট) শুভতোষ সরকার বলেন, “অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ সবকিছু খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Palashipara Tehatta TMC
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE