×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১১ মে ২০২১ ই-পেপার

ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা, ধৃত দম্পতি

নিজস্ব সংবাদদাতা
জিয়াগঞ্জ ০৭ ডিসেম্বর ২০২০ ০১:৫৪
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ধারালো অস্ত্র ও বোমা নিয়ে হামলা চালানোর অভিযোগ উঠল প্রতিবেশী দম্পতির বিরুদ্ধে। রবিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে জিয়াগঞ্জ থানা এলাকার ডাহাপাড়া বিধাননগর কলোনিতে। এই ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ধৃতদের নাম রাধারানি প্রামাণিক ও রঘুনাথ প্রামাণিক।

পুলিশ সূত্রে খবর, এদিন রাধারানিকে আদালতে হাজির করানো হয়েছিল। তবে হামলার সময় প্রতিবেশীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে আহত রঘুনাথকে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করাতে হয়। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর তাকে আদালতে তোলা হবে। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে খবর, বিধাননগর কলোনির বাসিন্দা ‘আক্রান্ত’ দম্পতি শীলা এবং সুকুমার মিস্ত্রি। রঘুনাথ ও রাধারানি তাঁদের প্রতিবেশী। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, সামান্য বিষয় নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে বিবাদ লেগেই থাকত। তাঁদের বিবাদ থানা-পুলিশ পর্যন্তও গড়িয়েছে এর আগে। গত শনিবার সুকুমারের সঙ্গে ফের ঝামেলা বাধে রঘুনাথের। এদিন সকালে রঘুনাথ সাইকেলের হ্যান্ডলে ব্যাগ ঝুলিয়ে সুকুমারের বাড়ির দিকে আসছিলেন। পড়শিদের দাবি, সেই সময় শীলা তাঁকে দেখে কিছু একটা জিজ্ঞাসা করেছিলেন। তাতেই তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠে রঘুনাথ। অভিযোগ, এরপর ব্যাগের ভেতরে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে শীলা ও সুকুমারের ওপর হামলা চালায় রঘুনাথ। স্বামীর সঙ্গে মিলে হামলা চালায় রঘুনাথের স্ত্রীও। সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে রঘুনাথকে ধরে ফেলেন। প্রতিবেশীদের সঙ্গে ধস্তাধস্তিতে মাথায় চোট পায় রঘুনাথ। রঘুনাথের সাইকেলে ঝোলানো ব্যাগে দু’টি সকেট বোমাও মেলে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও বম্ব স্কোয়াডের কর্মীরা এসে বোমা দু’টি নিষ্ক্রিয় করেন। আহত অবস্থায় রঘুনাথ এখনও মুর্শিদাবাদ মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন। ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর জখম হন শীলা ও সুকুমার। তাঁদের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পুলিশ। এদিন স্থানীয় এক বাসিন্দা বলেন, ‘‘রঘুনাথ অকারণে প্রতিবেশীদের সঙ্গে ঝামেলা বাধায়। তুচ্ছ ঘটনাতেও প্রতিবেশীদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানাতে দৌড়য়।’’

শীলা এদিন বলেন, ‘‘কাকু (রঘুনাথ) অকারণে সকলের সঙ্গে ঝামেলায় জড়ান। আমি কিছুই বলিনি। হঠাৎ এসে হামলা চালালেন।’’ লালবাগের মহকুমা পুলিশ আধিকারিক বিক্রম প্রসাদ বলেন, ‘‘অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে রঘুনাথ আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।’’

Advertisement
Advertisement