×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

স্ত্রীকে মারধরের পরে স্বামী আত্মঘাতী

নিজস্ব সংবাদদাতা
নবদ্বীপ ০৬ অক্টোবর ২০১৯ ০১:৫০
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

পারিবারিক অশান্তির জেরে স্ত্রীকে মারধর করে নিজে আত্মঘাতী হলেন স্বামী। ষষ্ঠীর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে নবদ্বীপ মহেশগঞ্জের নেহরু নগর কলোনিতে। মৃতের নাম মহাদেব বিশ্বাস (৪২)।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মহেশগঞ্জের বাসিন্দা মহাদেব পেশায় মৎস্যজীবী। কর্মসূত্রে তিনি পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘায় থাকেন। মাঝেমধ্যে বাড়ি আসেন। পুজো উপলক্ষে গত বৃহস্পতিবার দিঘা থেকে বাড়ি ফেরেন ওই ব্যক্তি।

প্রতিবেশীরা জানিয়েছে, মহাদেব বাড়িতে এসে বেশির ভাগ সময়ে মদ্যপ অবস্থায় থাকতেন। এই নিয়ে প্রবল অশান্তি হত তাঁর স্ত্রী গীতা বিশ্বাসের সঙ্গে। ষষ্ঠীর রাতেও যথারীতি মদ্যপান করে বাড়ি ফেরেন মহাদেব। মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করেন গীতা। তাতেই মহাদেব ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রী গীতার উপরে চড়াও হন। গীতাকে বেধড়ক মারধর শুরু করেন। মারের চোটে এক সময়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন তাঁর স্ত্রী। ওই

Advertisement

অবস্থায় স্ত্রীকে ফেলে রেখে পাশের ঘরে গিয়ে নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন মহাদেব। তাঁদের কিশোরী মেয়ের চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। তারাই ওই দু’জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে মহেশগঞ্জ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে দু’জনেরই অবস্থার অবনতি হলে তাঁদের শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। শনিবার ভোর ৪টে নাগাদ অগ্নিদগ্ধ মহাদেবের মৃত্যু হয়। গীতা এখনও চিকিৎসাধীন।

নবদ্বীপ থানার পুলিশ এই ঘটনায় একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করেছে। শনিবার বিকেলে মহাদেবের মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

Advertisement