×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই, স্বস্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা
বহরমপুর ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ০২:৪৮
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

সারা দেশের সঙ্গে শনিবার মুর্শিদাবাদের এক হাজার জনের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী প্রতিষেধক নিয়েছেন। রবিবার তাঁদের শরীরে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা যায়নি বলেই দাবি মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজের অধক্ষ্য শর্মিলা মল্লিকের। মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, জেলার মহকুমা ও ব্লক হাসপাতাল সহ মোট ১৩টি কেন্দ্র থেকে ১১৯৪ জনকে করোনা প্রতিষেধক দেওয়া হয়েছে।

কিন্তু ১৩০০ জন স্বাস্থ্যকর্মীকে প্রথমদিন করোনা প্রতিষেধক দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা থাকলেও জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে দাবি করা হয় শারীরিক অসুস্থতা ও ব্যক্তিগত কারণে প্রতিষেধক নিতে পারেননি ১০৬জন। যদিও সমন্বয়ের অভাবেই প্রথম দিনের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা যায় নি বলে দাবি চিকিৎসক সংগঠন আইএমএর। সংগঠনের বহরমপুর শাখার সম্পাদক রঞ্জন ভট্টাচার্য এদিন বলেন, ‘‘সরাসরি আমাদের সঙ্গে কোনও যোগাযোগ করা হয়নি। শনিবার চিকিৎসক স্বাস্থ্যকর্মী জেলায় কম থাকেন। তাঁদের মধ্যে বর্ষীয়ান চিকিৎসকও আছেন। যাঁরা প্রতিষেধক না পেয়ে উৎকন্ঠায় ভুগছেন। সে কথা চিকিৎসক আধিকারিকদের জানা উচিত ছিল।” তবে জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রশান্ত বিশ্বাস বলেন, ‘‘কয়েক জনের ড্রাগ অ্যালার্জি ছিল, দুএক জনের ঠান্ডা লেগেছিল। আর বাকিরা কেন আসেননি তা আমাদের জানাননি।’’ যাঁরা আসেননি তাঁদের নাম স্বাস্থ্য ভবন থেকে ফের পাঠানো হলে তারা প্রতিষেধক নেওয়ার সুযোগ পাবেন বলে জানান ওই আধিকারিক।

Advertisement
Advertisement