Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Haldia-farakka road renovation

হলদিয়া-ফরাক্কা বাদশাহি সড়ক সংস্কারে অনুমোদন

বৃহস্পতিবার ওই রাস্তা সংস্কারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের সেন্ট্রাল রিজার্ভ ফান্ড (সিআরএফ)।গত চার বছর ধরে ওই রাস্তায় পিচের চাদর উঠে গিয়ে খানাখন্দে পরিণত হয়েছিল।

হলদিয়া-ফরাক্কা বাদশাহি সড়কের সংস্কারের অনুমোদন মিলল।

হলদিয়া-ফরাক্কা বাদশাহি সড়কের সংস্কারের অনুমোদন মিলল। — ফাইল চিত্র।

কৌশিক সাহা
কান্দি শেষ আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ ১০:০৮
Share: Save:

প্রায় চার বছর বেহাল অবস্থায় পড়ে থাকার পর অবশেষে হলদিয়া-ফরাক্কা বাদশাহি সড়কের ফুটিসাঁকো থেকে কুলি চৌমাথার মোড় পর্যন্ত প্রায় ২৯ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারের অনুমোদন মিলল। মুর্শিদাবাদ হাইওয়ে ডিভিশন ২ বিভাগীয় আধিকারিক অতনু সেন বলেন, “কুলি থেকে ফুটিসাঁকো ২৮.৫ কিমি রাস্তা সংস্কারের অনুমোদন পাওয়া গিয়েছে।”

বৃহস্পতিবার ওই রাস্তা সংস্কারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের সেন্ট্রাল রিজার্ভ ফান্ড (সিআরএফ)।গত চার বছর ধরে ওই রাস্তায় পিচের চাদর উঠে গিয়ে খানাখন্দে পরিণত হয়েছিল। পথ দুর্ঘটনা ছিল ওই রাস্তার রোজকার ঘটনা। পূর্ত দফতরের পক্ষ থেকে ওই রাস্তায় ইট বিছিয়ে রাস্তা মেরামতির কাজ করে কোনও মতে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করেছিল মাত্র। কিন্তু ওই রাস্তার গুরুত্ব কতটা সেটা ওই রাস্তার যানবাহন চলাচলের হার বলে দেয়। ওই রাস্তা বর্তমানে অলিখিত জাতীয় সড়কে পরিণত হয়েছে। কলকাতা থেকে উত্তরবঙ্গের যোগাযোগের অন্যতম সড়ক এটি। এ ছাড়াও শতাধিক সরকারি ও বেসরকারি দূরপাল্লার বাস যাতায়াত করার সঙ্গে অবিরাম ভারি যানবাহন যাতায়াত করে বলেও দাবি বাসিন্দাদের।

ওই রাস্তার মধ্যে দিয়েই অর্থনৈতিক ভাবে উন্নতি হয়েছে এলাকার। ওই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য দীর্ঘ দিন ধরে সংস্কার না হওয়ায় স্থানীয় পরিবহণ ব্যবসায়ীরা বারংবার দাবি জানিয়েছেন। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। রাজনৈতিক দলগুলিও ওই রাস্তা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলন করেছে। সম্প্রতি প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি অধীর চৌধুরী কুলি থেকে মজলিশপুর পর্যন্ত প্রায় ১৯ কিলোমিটার রাস্তা পদযাত্রা করে রাস্তা সংস্কারের দাবি জানান। বড়ঞার বিধায়ক তৃণমূলের জীবনকৃষ্ণ সাহা একাধিক বার ওই রাস্তা সংস্কারের জন্য বিধানসভায় সরব হয়েছে। ওই রাস্তার গুরুত্ব যে কতটা সেটা এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে রাজনৈতিক দল থেকে পরিবহণ ব্যবসায়ী সলকেই বারংবার সরব হতে দেখা গিয়েছে।

এ বার ওই রাস্তা সংস্কার করার অনুমোদন পাওয়ায় খুশি সর্ব স্তরের বাসিন্দা। কান্দি মহকুমা পরিবহণ ব্যবসায়ীর সহকারী সভাপতি ফুলু মিঁয়া বলেন, “রাস্তাটি সংস্কার হবে জেনে সত্যিই ভাল লাগছে। কারণ ওই রাস্তাটি এলাকার শুধু নয়, সারা বাংলার জীবনরেখাও বটে।”পূর্ত দফতর সূত্রে জানা যায়, দশ মিটার চওড়া ওই রাস্তা সংস্কারের কাজ দ্রুত শুরু হবে।

মুর্শিদাবাদ হাইওয়ে ডিভিশন ২ বিভাগীয় আধিকারিক অতনু সেন বলেন, “আগামী ৮ ডিসেম্বর ওই রাস্তা সংস্কারের জন্য দরপত্র হবে। দরপত্র হলেই দ্রুত কাজ শুরু হবে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE