Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

লাইভ: কলকাতায় বন্‌ধের প্রভাব কম, বিক্ষিপ্ত অশান্তি জেলায়

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ নভেম্বর ২০২০ ০৮:১০
টায়ার পুড়িয়ে ধর্মঘটীদের বিক্ষোভ কলকাতায়। ছবি: পিটিআই।

টায়ার পুড়িয়ে ধর্মঘটীদের বিক্ষোভ কলকাতায়। ছবি: পিটিআই।

রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বিক্ষিপ্ত অশান্তি হলেও সাধারণ ধর্মঘটের বিশেষ প্রভাব পড়ল না কলকাতায়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে পথে নামেন বাম এবং কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকেরা। বিক্ষোভ-পথ অবরোধ-মিছিল করে ধর্মঘটের সমর্থন জানান তাঁরা। বারাসত এবং কোচবিহার-সহ বিভিন্ন জেলায় বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর পাওয়া গেলেও এখনও পর্যন্ত রাজ্যের কোথায় বড়সড় অশান্তি হয়নি। তবে সকালের দিকে মাঝেমধ্যেই শিয়ালদহ শাখায় রেল পরিষেবা ব্যাহত হয়েছে। অন্যদিকে, বন্‌ধ সমর্থককারীরা কয়েকটি মেট্রো স্টেশনে বিক্ষোভ দেখানোর জন্য জমায়েত হলেও তাঁরা ভিতরে ঢুকতে না পারেননি। ফলে মেট্রো পরিষেবা ব্যাহত হয়নি বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। মোটের উপর বন্‌ধের দিনে দুপুর পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ এ রাজ্য।

কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রম এবং কৃষি আইন-সহ নানান নীতির প্রতিবাদে এবং ৭ দফা দাবিতে দেশ জুড়ে সাধারণ ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়নগুলি। সেই কর্মসূচিকে ঘিরে বেশ কয়েক দিন ধরেই রাজ্য জুড়ে মিছিল এবং পথসভা করেছেন বাম এবং কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকরা। তবে এদিন ধর্মঘটীদের আসল পরীক্ষা। ধর্মঘটীদের দাবিদাওয়াগুলি সমর্থন করলেও তার সমর্থনে পথে নামবেন না বলে জানিয়েছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। অন্যদিকে, রাজ্য বিজেপি-র তরফে জানানো হয়েছে, এই বন্‌ধের সর্বাত্মক বিরোধিতা করবেন তারা।

ধর্মঘট ঘিরে যাতে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, সেদিকে লক্ষ্য রয়েছে রাজ্য সরকারের। শুধুমাত্র কলকাতাতেই ৫ হাজার পুলিশকর্মী মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাজ্য প্রশাসন।

Advertisement

আরও পড়ুন: তেল প্রকল্প ঘিরে বিক্ষোভ নয়, বোঝাচ্ছে সিপিএম

আরও পড়ুন: আলুর ‘আগুন’ দামে প্রলেপ সুফল বাংলাই

এক নজরে ধর্মঘটের নানা চিত্র:

• ধর্মঘটের বিরুদ্ধে বর্ধমানে পাল্টা পথে নামে তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন। বৃহস্পতিবার বর্ধমান শহরে তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের জেলা সভাপতি ইফতিকার আহমেদের নেতৃত্ব মিছিল হয়। মিছিলে গান গেয়ে ধর্মঘটের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করা হয়। বর্ধমান স্টেশন চত্বর থেকে মিছিল জিটি রোড হয়ে কার্জন গেট দিয়ে ঢোকে। মিছিলে ইফতিকার আহমেদ ছাড়াও ছিলেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক খোকন দাস।

• হুগলি জেলার জুটমিলগুলিতে কাজকর্ম বন্ধ রয়েছে। অন্যান্য কলকারখানাতেও হাজিরা কম। চাঁপদানির জিএসআই কটন মিলে কাজকর্ম স্বাভাবিক হলেও নর্থব্রুক, ডালহৌসি, শ্যামনগর নর্থ, ভিক্টোরিয়া, গ্যাঞ্জেস জুটমিলে শ্রমিক অনুপস্থিত।

• শেওড়াফুলি-বৈদ্যবাটিতে রেল অবরোধ।

• হুগলি স্টেশনে নিট পরীক্ষার্থীরা আবেদনে রেল অবরোধ তুলে নেন বন্‌ধ সমর্থনকারীরা।

• বন্‌ধ ঘিরে সকাল থেকেই অশান্তির পারদ চড়েছে কোচবিহারে। একদিকে, বামেদের মিছিল এবং অন্যদিকে তার বিরোধিতায় তৃণমূলের পাল্টা মিছিল হয়। কোচবিহার-বালুরঘাটগামী একটি বাসে বন্‌ধ সমর্থকেরা পাথর ছু়ড়ে কাচ ভেঙে দেন বলে অভিযোগ। অন্যদিকে, কোচবিহারের কেশব রোডে টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করা হয়।

• বীরভূম জেলা জুড়ে ধর্মঘটের মিশ্র প্রভাব পড়েছে। সকাল থেকেই পথে নেমেছেন বন্‌ধ সমর্থনকারীরা। বীরভূমের সিউড়ি, বোলপুর, দুবরাজপুর-সহ সমস্ত জায়গায় পথ অবরোধ করে সমর্থনকারীরা। তবে সব জায়গাতেই অবরোধ তুলে দেয় পুলিশ।

• বন্‌ধের দিনে দমদম, চাঁদনি চক এবং সেন্ট্রাল মেট্রো স্টেশনের বাইরে বন্‌ধ সমর্থকেরা জমায়েত হন। তবে ওই স্টেশনগুলিতে তাঁরা ঢুকতে পারেননি। ফলে মেট্রো পরিষেবা ব্যাহত হয়নি বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

• কান্দিতে বন্‌ধের সমর্থনে রাস্তায় বাম এব‌ং কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার সকালে কান্দি বাসস্ট্যান্ডে পথে নামেন তাঁরা। বন্‌ধ পালন করতে গেলে পুলিশের সঙ্গে তাঁদের বচসা হয়। যার জেরে উত্তেজনা দেখা দেয় কান্দি বাসস্ট্যান্ডে।

• মেদিনীপুর শহরের বিদ্যাসাগর স্ট্যাচু মোড়ে ধর্মঘটীরা রাস্তায় ক্রিকেট খেললেন। পরে কোতোয়ালি পুলিশ তাঁদের হটিয়ে দেয়।

• পশ্চিম বর্ধমান জেলায় বিভিন্ন জায়গায় বন্‌ধ সমর্থকরা যানবাহন চলাচলে বাধা দেয় বলে অভিযোগ। তবে পুলিশকর্মীরা তাঁদের সরিয়ে দিয়ে যানবাহন পরিষেবা সচল রাখার চেষ্টা করছেন।

• বন্‌ধের জন্য বেশ কিছু কয়লাখনিতে উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। কলকারখানার গেটে ধর্মঘটীদের জমায়েত দেখা যায়।

• আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চলে বিভিন্ন জায়গায় রেল অবরোধের চেষ্টা করেন বন্‌ধ সমর্থকরা।



দুর্গাপুরে পথ অবরোধ। —নিজস্ব চিত্র।

• শিয়ালদহ শাখার দক্ষিণ বারাসত, পলতা, ব্যারাকপুর, ঢাকুরিয়া, জয়নগর, চম্পাহাটি এবং দমদম ক্যান্টনমেন্ট স্টেশনে ট্রেনের ওভারহেড তারে কলাপাতা ফেলে অবরোধ করার চেষ্টা করেন বন্‌ধ সমর্থকেরা। তবে সাময়িক ভাবে পরিষেবা ব্যাহত হলেও এই মুহূর্তে পরিস্থিতি স্বাভাবিক বলে রেল সূত্রে খবর।

• চুঁচুড়া-নৈহাটি ফেরি সার্ভিস বন্ধ। প্রথম লঞ্চ চলার পর বন্ধ করে দেওয়া হয় লঞ্চ।

• লেনিন সরণিতে জোর করে দোকান বন্ধের অভিযোগ বন্‌ধ সমর্থনকারীদের বিরুদ্ধে।

• শিয়ালদহ শাখায় সকাল থেকেই বিক্ষিপ্ত ভাবে রেল পরিষেবা ব্যাহত হয়েছে।

• মৌলালি থেকে বামেদের মিছিল শুরু। সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউের দিতে এগোচ্ছে সেই মিছিল।



ডানকুনিতে বেশির ভাগ দোকানপাট বন্ধ ছিল। —নিজস্ব চিত্র।


• ডানকুনিতে বন্‌ধে সাড়া মিলেছে বলে দাবি ধর্মঘটীদের। ওখানে বেশির ভাগ দোকানপাট বন্ধ ছিল বলে জানিয়েছেন তাঁরা।

• বারাসতে বন্‌ধ ঘিরে অশান্তি। ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়কে একটি পণ্যবাহী গাড়ির উপর বন্‌ধ সমর্থকেরা উঠতে গেলে অশান্তি শুরু হয়। অভিযোগ, লাঠিচার্জ করে তাঁদের সরিয়ে দিতে যান পুলিশকর্মীরা। সে সময় ঝামেলা বাধে। পুলিশের সঙ্গে বন্‌ধ সমর্থকদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়।

• খিদিরপুরে বামেদের মিছিল শুরু। রয়েছেন দলীয় নেতা-কর্মী-সমর্থকেরা।

• রাজ্যে বেসরকারি বাস কম হলেও পথে নেমেছে বহু সরকারি বাস।

• কামালগাজি মোড়ে সিটু-র মিছিল।

• বেহালায় মিছিল করে অবরোধ শুরু বামেদের।

• সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ মেট্রো স্টেশনের সামনে অবরোধ শুরু।

• যাদবপুরে ট্রেনের সামনে দাঁড়িয়ে পড়েন বন্‌ধ সমর্থকেরা। দলীয় পতাকা নিয়ে স্লোগান দিতে থাকেন বাম এবং কংগ্রেস কর্মীরা।



শ্রীরামপুরে বন্‌ধ সমর্থকদের রেল অবরোধ। —নিজস্ব চিত্র।

• রাজাবাজারে কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকদের পথ অবরোধ।

• যাদবপুর স্টেশনে বন্‌ধ সমর্থকেরা ট্রেন লাইনের উপরেই বসে পড়ে অবরোধ শুরু করেন বাম কর্মীরা।

• যাদবপুরের ৮বি বাসস্ট্যান্ড থেকে সুজন চক্রবর্তীর নেতৃত্বে বামেদের মিছিল শুরু। মিছিলে রয়েছেন কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকেরাও।



নাগেরবাজার মোড়ে মিছিল। ছবি: অভিজিৎ দাস।

• উলুবেরিয়া ও বীরশিবপুর স্টেশনের মাঝে রেল অবরোধ করলেন ধর্মঘট সমর্থনকারীরা।

• নাগেরবাজারে দলীয় পতাকা নিয়ে মিছিল বাম কর্মী-সমর্থকদের।

• ধর্মঘটের দিনে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নাগেরবাজার মোড়েও পথে নেমেছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

• হাওড়ায় আমতা রোডের শানপুর মোড়ে অবরোধ করেন ধর্মঘট সমর্থনকারীরা। সেখানে নরেন্দ্র মোদীর কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়।

• বারাসতের চাঁপাডালি মোড়ে যশোর রোডে রাস্তায় বসে পড়ে অবরোধ বামেদের।

• নাগেরবাজারে অবরোধ বাম এবং কংগ্রেসের।

• হাওড়া-ব্যান্ডেল শাখার চন্দননগর এবং শ্রীরামপুরে সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ অবরোধ শুরু।

• ধর্মঘটের সমর্থনে বেলঘরিয়ায় রেল রোকো কর্মসূচি পালন করে বামেরা।



মধ্যমগ্রামে রেল অবরোধ। ছবি: রাজ্য সিপিএমের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সৌজন্যে।

• শিয়ালদহ-বারাসত শাখার নিউ ব্যারাকপুরে স্টেশনে অবরোধ শুরু।

• ব্যারাকপুরে টায়ার পুড়িয়ে ধমর্ঘটের সমর্থন জানিয়েছেন বাম কর্মী-সমর্থকেরা।

• ডায়মন্ডহারবার শাখার সংগ্রামপুর স্টেশনেও অবরোধ দেখা করেছেন বামেরা।



ব্যারাকপুরে টায়ার পুড়িয়ে পথ অবরোধ। ছবি: রাজ্য সিপিএমের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সৌজন্যে।

• সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ ইছাপুরে রেল অবরোধ তুলে নেন ধর্মঘটীরা।

• সুভাষগ্রামে সকাল সওয়া ৭টা নাগাদ অবরোধ।



কলেজ স্ট্রিটে পথ অবরোধে বামেরা। ছবি: রাজ্য সিপিএমের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের সৌজন্যে।

• সকালে ধর্মতলায় টায়ার পুড়িয়ে পথ অবরোধ করেন ধর্মঘটের সমর্থনকারীরা।

• উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রাম স্টেশনে বন্‌ধ সমর্থকেরা বনগাঁ-শিয়ালদা শাখার লোকাল ট্রেন লক্ষ্য করে পাথর ছুড়ে মারেন বলে অভিযোগ

• ইছাপুরের রেল অবরোধ করেন বাম কর্মী-সমর্থকেরা।

• ধর্মঘটের সপক্ষে পথে নেমেছেন বাম দলগুলির কর্মীরা। কলেজ স্ট্রিটে পথ অবরোধ করেন তাঁরা।



রায়গঞ্জে রাস্তায় বসে বামেদের পথ অবরোধ। —নিজস্ব চিত্র।

• শ্রমিক সংগঠনের ডাকা বন্‌ধে দীর্ঘক্ষণ অবরুদ্ধ ৬ নম্বর এবং ৪১ নম্বর জাতীয় সড়ক। তবে সচল রয়েছে হলদিয়া শিল্পাঞ্চল।

• বারাসতের চাঁপাডালির মোড়ে পথ অবরোধ।

• হাওড়া শানপুর মোড়ে অভিনব প্রতিবাদ বামপন্থী কর্মী-সমর্থকদের। রাস্তার উপর বসে লুডু খেলেন তাঁরা।

• ধর্মঘটে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের ডোমজুড় স্টেশনে রেল অবরোধ করে বামেরা। সকাল সাড়ে ৭টা নাগাদ সিপিএম কর্মীরা লাইনের ওপর গাছের গুড়ি ফেলে অবরোধ করে। আটকে পড়ে আমতা থেকে হাওড়াগামী লোকাল ট্রেন। ঘটনাস্থলে ছুটে পৌঁছেছে রেল পুলিশ।

আরও পড়ুন

Advertisement