Advertisement
২২ জুলাই ২০২৪

ভল্ট কেটে বারো লক্ষ চুরি ব্যাঙ্কে

ব্যাঙ্কের ভল্ট কেটে প্রায় বারো লক্ষ টাকা লুঠ করল দুষ্কৃতীরা। দমনপুর এলাকায় একটি ব্যাঙ্কের ঘটনা। সোমবার সকালে ঘটনাটির কথা জানা যায়।

তদন্ত: ভাঙা ভল্টে তল্লাশি পুলিশের। নিজস্ব চিত্র

তদন্ত: ভাঙা ভল্টে তল্লাশি পুলিশের। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
আলিপুরদুয়ার শেষ আপডেট: ২৮ নভেম্বর ২০১৭ ০২:৫৬
Share: Save:

ব্যাঙ্কের ভল্ট কেটে প্রায় বারো লক্ষ টাকা লুঠ করল দুষ্কৃতীরা। দমনপুর এলাকায় একটি ব্যাঙ্কের ঘটনা। সোমবার সকালে ঘটনাটির কথা জানা যায়।

এ দিন সকালে ব্যাঙ্কের দরজার তালা খুলতে গিয়ে কর্মীরা দেখেন দরজাটি ভিতর থেকে চেয়ার,টেবিল দিয়ে আটকানো আছে। কিছু অঘটন ঘটেছে বুঝতে পেরে কালচিনি থানার পুলিশকে ফোন করেন তাঁরা। পুলিশ ভিতরে ঢুকে দেখে ব্যাঙ্কের ভল্ট গ্যাস কাটার দিয়ে কাটা। পরে ঘটনাস্থল ঘুরে দেখেন আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার আভারু রবীন্দ্রনাথ।

রাস্ট্রায়াত্ত ব্যাঙ্কের কর্মীরা জানান, গত শুক্রবার শেষ কাজ হয় ব্যাঙ্কে। পরের দিন মাসের চতুর্থ শনিবার থাকায় ব্যাঙ্কটি বন্ধ ছিল। রবিবার সাপ্তাহিক ছুটি ছিল। এই দু’দিনের মধ্যেই ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। রাতে ব্যাঙ্কের নিজস্ব কোনও নিরাপত্তা রক্ষী ছিল না। তবে রাতে ব্যাঙ্কের পাশে তিনজন সিভিক ভলান্টিয়ার্স থাকার কথা।

আলিপুরদুয়ারের পুলিশ সুপার আভারু রবীন্দ্রনাথ জানান, ব্যাঙ্কের সামনের দিকের কাঠের জানলা দিয়ে চোরেরা ঢুকেছে। জানলার ছিটকিনি খুলে লোহার গ্রিল খোলা হয়েছে। গ্যাস কাটার দিয়ে ভল্ট কেটে সেখান থেকে প্রায় বারো লক্ষ সতেরো হাজার টাকা নিয়ে পালিয়েছে দুষ্কৃতীরা। তবে ব্যাঙ্কের গ্রাহকদের লকারগুলো সুরক্ষিত রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। রাতে সিভিক ভলান্টিয়ার্সরা কী করছিল তা খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান পুলিশ সুপার। তিনি জানিয়েছেন, ব্যাঙ্কের ছ’টি সিসিটিভি ক্যামেরার মধ্যে চারটির সংযোগ কেটে দিলেও দু’টি ঠিক ছিল। আভারু রবীন্দ্রনাথ জানান, বিহার-ঝাড়খন্ড এলাকায় এ ধরনের ব্যাঙ্ক ডাকাতি হয়। এই ঘটনায় অসম বা রাজ্যের অন্য জেলার দুষ্কৃতীদের যোগ রয়েছে কিনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সিসিটিভিতে দেখা গিয়েছে শনিবার রাত দেড়টা নাগাদ ব্যাঙ্কে দু’জন ব্যক্তি ঢোকে। তাঁদের মুখ ঢাকা ছিল। বাইরে তাদের কোনও সঙ্গী অপেক্ষা করছিল বলে পুলিশের সন্দেহ।

ব্যাঙ্কের ম্যানেজার মহম্মদ ইন্তেকশাদ জানান, পুরো বিয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে। ব্যাঙ্কের পাশেই থাকেন অবসরপ্রাপ্ত রেঞ্জ অফিসার চন্দন দে।

তিনি জানান, ‘‘রাতে কোনও রকম শব্দ পাইনি।’’ কাছেই থাকেন আইনজীবী তুষার চক্রবর্তী। তিনি জানান, সোমবার ভোরে তাঁর বাড়ির সামনে একটি গ্যাস সিলিন্ডার পড়েছিল। সিলিন্ডারটি সংগ্রহ করেছে পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Bank Stolen Money Police
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE