×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

ডুয়ার্সের জঙ্গলে ফের ড্রোন উড়িয়ে শুটিংয়ের অভিযোগ, ‘অনুমতি’ বিতর্কে জেলাশাসক

নিজস্ব সংবাদদাতা
ধূপগুড়ি ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৯:০২
মরাঘাটের জঙ্গলের উপর ড্রোন।

মরাঘাটের জঙ্গলের উপর ড্রোন।
নিজস্ব চিত্র।

ফের ডুয়ার্সের সংরক্ষিত বনাঞ্চলের পাশে ড্রোন ওড়ানোর ঘটনাকে ঘিরে বিতর্ক। অভিযোগ, তথ্যচিত্র তৈরির জন্য সোমবার জলপাইগুড়ি বনবিভাগের মরাঘাট রেঞ্জের অন্তর্গত রাভা বস্তিতে ওড়ানো হয়েছে ড্রোন।

সংরক্ষিত বনাঞ্চলের এলাকায় ড্রোন ওড়ানো নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন পরিবেশপ্রেমীরা। যদিও অভিযুক্তদের দাবি সরকারি অনুমতি নিয়েই তাঁরা ড্রোন উড়িয়েছেন। সে ক্ষেত্রে প্রশ্ন, তাহলে কি সরকারি কর্মীরাই আইন ভাঙার অভিযোগে অভিযুক্ত? প্রসঙ্গত, এর আগে ডুয়ার্সের অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র মূর্তি এলাকায় শুটিং করতে এসে ড্রোন' ওড়ানোর অপরাধে চলচ্চিত্র পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়কে জরিমানা দিতে হয়েছিল।

পরিবেশপ্রেমীদের দাবি, আইনত সংরক্ষিত বনাঞ্চলের উপরে ড্রোন ওড়ানোর অনুমতি দেওয়া যায় না। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানতে জলপাইগুড়ির জেলাশাসক মৌমিতা গোদারা বসুর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়েছিল। কিন্তু তাঁর ফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ সম্ভব হয়নি। হোয়াটস অ্যাপে টেক্সট করা হলে তাঁর উত্তর, ‘জঙ্গল এলাকাতে ড্রোন উড়িয়ে ভিডিয়ো করার কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। একটি তথ্যচিত্র তৈরির জন্য কিছু ক্ষেত্রে প্রয়োজন কথা বলা হয়েছে তবে গ্রামীণ এলাকাতে। আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি।’’

Advertisement

জলপাইগুড়ির বিভাগীয় বনাধিকারিক (ডিএফও)-কে ফোন করা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান। তিনি বলেন, ‘‘আমাকে জেলাশাসক একটি চিঠি দিয়েছেন। তবে অনুমতি দেওয়া হয়েছে কি না বনদপ্তরের তরফে সেটা নিয়ে কিন্তু ধন্দ রয়েছে।’’ মরাঘাট রেঞ্জের রেঞ্জ অফিসার রাজকুমার পালকে এবিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘‘জেলা বনদপ্তর এর তরফে কোনও অনুমতি দেওয়া হয়েছে কি না তা আমার জানা নেই। তবে আমার রেঞ্জের তরফ থেকে কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। কারা ড্রোন উড়িয়ে শুটিং করল, কে অনুমতি দিয়েছে, তা এখনও আমার কাছে পরিষ্কার নয়। আমি খোঁজ নিয়ে দেখছি। অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’’

ওদলাবাড়ির পরিবেশপ্রেমী নফসর আলি বলেন, ‘‘সংরক্ষিত বনাঞ্চল অথবা জাতীয় উদ্যানের পার্শ্ববর্তী এলাকায় ড্রোন ওড়ানো আইনত যায় না। কারণ এর আগে পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়কে ড্রোন উড়িয়ে শুটিং করার অপরাধে জরিমানা দিতে হয়েছিল। সংরক্ষিত জঙ্গলের পাশে ড্রোন উড়ানোর অনুমতি জেলাশাসক দিতে পারেন কি না, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে আমাদের মধ্যে।’’

জলপাইগুড়ির অনারারি ওয়াইল্ডলাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরীর বলেন, ‘‘বিষয়টি সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের মাধ্যমেই জানতে পারি। এর আগেও এভাবে সংরক্ষিত বনাঞ্চলের পাশে ড্রোন' ওড়ানোর অপরাধে জলপাইগুড়ির একজন ইঞ্জিনিয়ারকে জেলে যেতে হয়েছিল। এমনকি, চিত্রপরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়কে সংরক্ষিত বনাঞ্চলের পাশে ড্রোন ওড়ানোর কারণে জরিমানা দিতে হয়েছিলো। জাতীয় উদ্যান ও সংরক্ষিত বনাঞ্চলের পাশে এভাবে ড্রোন ওড়ানো আইনত নিষিদ্ধ। বিষয়টি বনাধিকারিকের থেকে খোঁজখবর নিয়ে দেখছি।’’

Advertisement