×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

ভর্তুকি নয়, ন্যায্য মূল্য চাই ফসলের: মেধা

অভিজিৎ পাল 
ইসলামপুর ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ ০৫:৩২
দাবি: চোপড়া হাই স্কুল মাঠে কৃষকদের সমর্থনে, এনআরসির প্রতিবাদে বক্তব্য রাখছেন মেধা পাটকর। নিজস্ব চিত্র।

দাবি: চোপড়া হাই স্কুল মাঠে কৃষকদের সমর্থনে, এনআরসির প্রতিবাদে বক্তব্য রাখছেন মেধা পাটকর। নিজস্ব চিত্র।

কৃষকদের জন্য ২ হাজার টাকা কিংবা ৬ হাজার টাকা করে ভর্তুকি চাই না। কৃষি ফসলের আসল দাম হলেই হবে। কোনও বিমারও দরকার নেই। বুধবার চোপড়া হাইস্কুল মাঠে কৃষকদের সমর্থনে সভা করতে এসে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হবে এমনটাই মন্তব্য করেন সমাজসেবী মেধা পাটকর। এ দিন একটি অরাজনৈতিক সংগঠনের উদ্যোগে চোপড়া হাই স্কুল মাঠে ওই সভার আয়োজন হয়। সেখান থেকেই তিনি দাবি জানান, ১ জানুয়ারি থেকে আদানি, আম্বানিদের পণ্য সামগ্রী ব্যবহার না করার।

দিল্লির কৃষকদের সমর্থন ছাড়াও ইসলামপুর জেলার দাবি, এনআরসির প্রতিবাদের মতো কিছু দাবি নিয়ে এ দিন সভার হয়। আয়োজন করে, ‘ন্যাশনাল অ্যাওয়ারনেস অফ পিপল মুভমেন্ট।’ সেখানে বেশ কিছু অরাজনৈতিক সংগঠনের লোকেরা ছিলেন। সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে, মেধা বলেন, কৃষকরা সাধারণ মানুষকে সমস্যায় ফেলতে নয়, তাদের হয়েই আন্দোলনে নেমেছে। বিভিন্ন জায়গায় তাদের আটকে দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য নিয়েও পুঁজিপতি ও কেন্দ্রকে কটাক্ষ করেন মেধা। বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠানকে বেসরকারিকরণ নিয়েও কেন্দ্রকে দোষ দেন তিনি।

এ দিন মেধা আরও বলেন, ‘‘সরকার বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও বলছে অথচ স্কুল বন্ধ থাকায় মেয়েরা স্কুলমুখী হওয়া এবং পড়াশোনা ভুলে যাবে। সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে নিজেদের দায়িত্ব ঝেড়ে ফেলার জন্য এই কাজ করছে।’’ এ দিন সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে মেধা বলেন, ‘‘কৃষকদের ভর্তুকি, বীমা কিংবা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে টাকা দেওয়ার প্রয়োজন নেই। প্রয়োজন, কৃষি ফসলের আসল দাম মেলার।’’ বুধবার কেন্দ্রের সঙ্গে কৃষিবিল নিয়ে বৈঠকে সমাধান মিলবে কি না সেই প্রসঙ্গে মেধা বলেন, ‘‘আশা, বিশ্বাস নিয়ে আন্দোলন চলে।’’ ইসলামপুরকে জেলা করার দাবিও রয়েছে বলে জানান তিনি। আয়োজকদের পক্ষ থেকে পাসারুল আলম বলেন, ‘‘কৃষকদের সমর্থন ছাড়াও আরও কিছু দাবিতেই এ দিনের সমাবেশ করা হয়েছে।’’

Advertisement
Advertisement