Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

চা বাগানের দখল ঘিরে রণক্ষেত্র চোপড়া, গুলিতে আহত শ্রমিক

গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে প্রথমে স্থানীয় দলুয়া প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং পরে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

নিজস্ব সংবাদদাতা
চোপড়া (উত্তর দিনাজপুর) ২৯ জানুয়ারি ২০২১ ২২:২৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
সংঘর্ষ ঘিরে উত্তেজনা চোপড়ায়।

সংঘর্ষ ঘিরে উত্তেজনা চোপড়ায়।
নিজস্ব চিত্র।

Popup Close

চা বাগানের দখলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে চলল গুলি। জখম হলেন এক শ্রমিক। শুক্রবার দুপুরে ঘটনার জেরে উত্তর দিনাজপুরের চোপড়ার হাপতিয়াগছ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার অশান্তি ছড়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে হিরামনগছে ছুটে যায় চোপড়া থানার পুলিশ। দু’টি বন্দুক উদ্ধারের পাশাপাশি এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়।

গুলিবিদ্ধ ব্যক্তিকে প্রথমে স্থানীয় দলুয়া প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র এবং পরে ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সংঘর্ষের ঘটনায় দু’পক্ষ একে অপরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে চোপড়া থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রের খবর, ২৭ একরের ওই চা বাগানটিতে ৪০ জন শ্রমিক কাজ করেন। কিন্তু ওই শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা না করেই স্থানীয় জমি মাফিয়া সিন্ডিকেট চা বাগানটি কিনে নেয়। শুক্রবার বাগানে শ্রমিকরা কাজে নামলেই পিয়ার আলি নামের বর্তমান বাগান মালিক এবং তার দলবল শ্রমিকদের কাজে নামতে বাধা দেন বলে অভিযোগ।

Advertisement

শ্রমিকদের অভিযোগ, মালিকপক্ষ তাঁদের কিছু না বলে বাগান বিক্রি করতে পারেন না। পুর্বতন মালিক শ্রমিকদের নিষেধ না করা পর্যন্ত তাঁরা বাগানে কাজ করবেন। এর পরেই শুরু হয় দুপক্ষের সংঘর্ষ। অভিযোগ পিয়ার গুলি চালান। গুলিবিদ্ধ হন আকবর আলি নামে এক শ্রমিক। চোপড়া থানার পুলিশ পিয়ার-সহ দু’জনকে আটক করার পাশাপাশি দু’টি পাইপগান উদ্ধার করেছে।

আকবর বলেন, ‘‘সকালে আমরা কাজে যেতেই পিরার আর তার দলবল নিয়ে এসে হুমকি দেয়। কাজ বন্ধ করতে বলে। এরপর বচসা শুরু হয়। হঠাৎই বাইকের ডিকিতে রাখা পাইপগান তুলে পিয়ার গুলি চালায়।’’

অন্যদিকে, পিয়ারের দাবি, বিতর্কিত চা বাগানের জমিতে তাঁরা কেউই যাননি শুক্রবার। ওই বাগানের পাশে আনারস বাগানের পরিচর্যা করতে গিয়েছিলেন তাঁরা। বিতর্কিত চা বাগানের শ্রমিকরা সংঘবদ্ধভাবে তাদের ওপর আক্রমণ চালায়। গুলি চালানোর অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তিনি। চোপড়া থানা জানিয়েছে, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement