Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

বর্ষসেরা খেলোয়াড়দের সম্মান

আগামী সোমবার শিলিগুড়ির বর্ষসেরা খেলোয়াড়দের সম্মানিত করবে পানু দত্ত মজুমদার স্মৃতি সব পেয়েছির আসর। সব খেলার সেরাদের প্রতি বছরই সম্মানিত করা

সংগ্রাম সিংহ রায়
শিলিগুড়ি ০৬ জুলাই ২০১৫ ০২:১১
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

আগামী সোমবার শিলিগুড়ির বর্ষসেরা খেলোয়াড়দের সম্মানিত করবে পানু দত্ত মজুমদার স্মৃতি সব পেয়েছির আসর। সব খেলার সেরাদের প্রতি বছরই সম্মানিত করা হয় এই স্মৃতি সংস্থার পক্ষ থেকে। চলতি বছরেও কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে সম্মান ও পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামের সভাঘরে বলে সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ৬ জুলাই সন্ধ্যা ৬ টা ৩৪ মিনিটে অনুষ্ঠানটি শুরু হবে বলে জানান সংস্থার সচিব শ্যামল সরকার। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেব, মেয়র অশোক ভট্টাচার্য থেকে শহরের সমস্ত ক্রীড়াপ্রেমী ও ক্রীড়া ব্যক্তিত্বদের।

কেন এমন সময়?

ব্যখ্যা দিলেন শ্যামলবাবু। ১৯৮৫ সালের ৬ জুলাই সন্ধ্যা ৬ টা ৩৪ মিনিটেই প্রয়াত হন ক্রীড়া সংগঠক পানু দত্ত মজুমদার। তাঁর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ জানাতে এই ভাবেই স্মরণ করা হয় তাঁকে। চলতি বছর পানুবাবুর ৩০ তম প্রয়াণ দিবস। শিলিগুড়ির খেলাধূলায় পানু দত্ত মজুমদারের অবদান রয়েছে বলে ক্রীড়া মহলও স্বীকার করেছে। নিজের ক্রীড়া জীবনে তৎকালীন শিলিগুড়ি স্পোর্টস অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য ছিলেন তিনি। এ ছাড়াও কবাডি অ্যাসোসিয়েশন, তীরন্দাজি, খোখো, অফিস ক্রীড়া, মহিলা ক্রীড়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন তিনি। বহু সফল প্রতিযোগিতা আয়োজন করে তিনি উত্তরবঙ্গের ক্রীড়া জগতে পরিচিতি লাভ করেন। তিনিই শিলিগুড়িতে প্রথম খেলাধূলায় প্রশিক্ষণ শিবির চালু করেন বলে জানান তাঁর ছেলে ক্রীড়া সংগঠক ভাস্কর দত্ত মজুমদার। পানু দত্তের নামে শিলিগুড়ি কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে একটি পূর্ণাবয়ব মূর্তিও তৈরি করা হয়েছে সব পেয়েছির আসরের পক্ষ থেকেই। স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষের প্রতি এ জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ভাস্করবাবু। শিলিগুড়ি মহকুমা ক্রীড়া পরিষদের সচিব অরূপরতন ঘোষও শিলিগুড়ির ক্রীড়াতে পানুবাবুর অবদান স্মরণীয় বলে মন্তব্য করেন।

Advertisement

চলতি বছরে যাঁরা সংস্থার পক্ষ থেকে সম্মান লাভ করবেন তাঁদের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে সংস্থার পক্ষ থেকে। এ বছরে সারাজীবনের খেলায় অবদানের জন্য সম্মানিত করা হবে প্রাক্তন ফুটবলার চিত্ত চন্দকে। এ ছাড়া সেরা ফুটবলার অরিন্দম দাস, সেরা ক্রিকেটার রাজকুমার রায়, সেরা অ্যাথলিট (মহিলা) ফারহানা পরভিন, সেরা অ্যাথলিট (পুরুষ) বিপুল ওঁরাও, সেরা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় অম্রুতা দাস, সেরা খোখো খেলোয়াড় (মেয়ে) পারমিতা দেবনাথ, সেরা খোখো খেলোয়াড় (ছেলে) সুমন বিশ্বাস, সেরা কাবাডি খেলোয়াড়- গায়ত্রী পণ্ডিত। সেরা রেফারি নির্বাচন করা হয়েছে ফুটবল থেকে সুব্রত রায়কে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement