Advertisement
১৮ জুলাই ২০২৪
Gorkhaland Territorial Administration

জিটিএ-সহ সব জেলার ১০০ দিনের কাজের টাকা ছাড়ল রাজ্য, ১ মার্চের মধ্যে মেটাতে হবে বকেয়া

রাজ্য সরকার জানিয়েছে, ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে টাকা বিলি শুরু করা হচ্ছে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে। ১ মার্চের মধ্যে একশো দিনের কাজের টাকা বিলি শেষ করে ফেলতে হবে জিটিএ-সহ ২২টি জেলাকেই।

একশো দিনের কাজের টাকা ছাড়া শুরু করল রাজ্য।

একশো দিনের কাজের টাকা ছাড়া শুরু করল রাজ্য। — গ্রাফিক: সনৎ সিংহ

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
শিলিগুড়ি শেষ আপডেট: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৮:০৯
Share: Save:

‘গোর্খাল্যান্ড টেরিটোরিয়াল অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ (জিটিএ)-সহ ২২টি জেলাকে ১০০ দিনের কাজের টাকা মেটাল রাজ্য সরকার। রাজ্যের বিভিন্ন জেলার পাশাপাশি জিটিএয়ের ১০০ দিনের কাজের টাকাও বকেয়া ছিল। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, কেন্দ্র না দেওয়ায়, সেই টাকা রাজ্যই মিটিয়ে দেবে। কেন্দ্রের মুখাপেক্ষী হয়ে আর বসে থাকা হবে না। তার পরেই খবর, বকেয়া ১০০ দিনের কাজের টাকা মেটানো শুরু করে দিয়েছে নবান্ন।

সরকারি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, জিটিএ-সহ রাজ্যের ২২টি জেলায় ১০০ দিনের কাজের মজুরি বাবদ বকেয়া দু’হাজার ছ’শো পঞ্চাশ কোটি টাকারও কিছু বেশি অর্থ রিলিজ় (টাকা ছাড়া) করা হয়েছে। তার মধ্যে জিটিএ-র প্রাপ্য ১২৯ কোটি ৪২ লক্ষ ৮৯ হাজার ৭২৮ টাকা। সরকারি নির্দেশিকায় স্পষ্ট বলা হয়েছে, ২৬ ফেব্রুয়ারি, সোমবার থেকে সরাসরি উপভোক্তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ১০০ দিনের কাজের বকেয়া মজুরি পাঠানো শুরু করতে হবে। তা শেষ করে ফেলতে হবে আগামী ১ মার্চের মধ্যে।

এ বিষয়ে জিটিএ-র মুখপাত্র এসপি শর্মা জানান, ‘‘কেন্দ্রীয় সরকার শুধু মাত্র নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করতে রাজ্যকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিল। কিন্তু কেন্দ্র এটা বুঝতে পারেনি যে, এতে রাজ্য সরকারের পাশাপাশি খেটে খাওয়া মানুষদেরও কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হচ্ছে। রাজ্য সরকার সে বিষয়ে চিন্তা করেছে এবং রাজ্যই ১০০ দিনের কাজের টাকা মিটিয়ে দিচ্ছে। আমাদের আশা, এর পর পাহাড়ের মানুষ বুঝবেন, কে তাঁদের ভাল চায়। রাজ্যের এই সিদ্ধান্ত আগামী লোকসভা নির্বাচনেও প্রভাব ফেলবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

MGNREGS GTA
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE