×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

পুলিশ নিয়ে বিধায়ক উদয়নের কর্মসূচি, অভিযোগ গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কোচবিহার ১৫ জানুয়ারি ২০২১ ২২:০৩
নয়ারহাটে উদয়ন গুহ— নিজস্ব চিত্র।

নয়ারহাটে উদয়ন গুহ— নিজস্ব চিত্র।

নিজের বিধানসভা কেন্দ্রেই পুলিশ বাহিনী নিয়ে দলীয় কর্মসূচি পালন করতে হল দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহকে। অভিযোগ, তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের জেরেই শুক্রবারের এই ঘটনা।

উদয়ন ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে ঘোষণা করেছিলেন, দিনহাটার নয়ারহাট এলাকায় দলীয় কর্মসূচি করতে না পারলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন। তাঁর নিশানা ছিল তৃণমূলের প্রাক্তন ব্লক সভাপতি মীর হুমায়ুন কবিরের দিকে। উদয়নের অভিযোগ, দলের একাংশু হুমকি দিয়েছে, নয়ারহাটে তাঁকে দলীয় কর্মসূচি করতে দেওয়া হবে না।

শুক্রবার গোবরাছড়া-নয়ারহাট গ্রামপঞ্চায়েত এলাকায় উদয়ন তাঁর দলীয় কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন। এই কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়, তৃণমূলের জেলা সাধারণ সম্পাদক রাহুল রায়। প্রথমে ওই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় জনসংযোগ যাত্রা করেন উদয়ন। এই কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে গোবরাছড়া-নয়ারহাট এলাকায় মোতায়ন ছিল বিশাল পুলিশবাহিনী। ওই এলাকায় প্রবেশের রাস্তায় সকাল থেকেই বসানো হয়েছিল নাকা চেকিং। তা ছাড়াও বিধায়কের সঙ্গে ছিলেন জেলা পুলিশের বেশ কয়েকজন আধিকারিক।

Advertisement

পুলিশকে নিয়ে বিধায়কের এই কর্মসূচি পালনকে কটাক্ষ করেছে তৃণমূলের অন্য গোষ্ঠী। গোবরাছড়া-নয়ারহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মমতাজ বেগম বলেন, ‘‘বিধায়কের নিজের কেন্দ্রে কোনও জনসংযোগ নেই। তাই তিনি পুলিশ নিয়ে দলীয় কর্মসূচি পালন করতে এসেছেন। এলাকায় বিধায়ক এসেছেন, কিন্তু সাধারণ মানুষ তাঁর কাছে না গিয়ে পুলিশ দেখে পালিয়ে যাচ্ছে। আমার গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় কর্মসূচিতে আমাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। এই গ্রাম পঞ্চায়েতে ২৩ জন পঞ্চায়েত সদস্য রয়েছেন। তার মধ্যে একজন মাত্র বিধায়কের সঙ্গে রয়েছেন। বাকি ২২ জন আমাদের সঙ্গে।’’ কবির গোষ্ঠীর অভিযোগ, উদয়ন দলে থাকবেন না বলেই নানা রকম অজুহাত দেখাচ্ছেন।

উদয়ন শুক্রবার বলেন, ‘‘এই কর্মসূচি পালন করব বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়েছিলাম। সেই কর্মসূচি পালন করলাম। যারা হুমকি দিচ্ছিল, তারা নিজেরাই লজ্জা পাবে। পুলিশকে আমি ডাকিনি। পুলিশ নিজের মতো করে এসেছে। আমি বহিরাগতদের নিয়েও আসিনি। যাঁরা এসেছেন, তাঁরা সকলেই আমার বিধানসভা কেন্দ্রের কর্মী।’’ জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থপ্রতিম বলেন, ‘‘এটি রুটিন জনসংযোগ কর্মসূচি। সমস্ত বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়কেরা এই কর্মসূচি পালন করছেন। আমি নিজেও এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছি। এখানে গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কোনও বিষয় নেই। সামান্য কিছু সমস্যা রয়েছে। আলোচনার মাধ্যমে তা মিটিয়ে নেওয়া হবে।’’

Advertisement