×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩০ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

‘এনআরসি, সিএএ প্রাণ দিয়ে রুখব’: অনুব্রত

নিজস্ব সংবাদদাতা 
সিউড়ি ২৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ০২:০৬
সিউড়িতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে মিছিলে অনুব্রত মণ্ডল। নিজস্ব চিত্র

সিউড়িতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে মিছিলে অনুব্রত মণ্ডল। নিজস্ব চিত্র

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির প্রতিবাদে সোমবার দুপুরে সিউড়িতে ‘মহামিছিল’ করল তৃণমূল। ওই মিছিল থেকে সর্বধর্ম সমন্বয়ের বার্তা দিতে ছ’জন নাবালক ও নাবালিকাকে বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষের পোশাকে সাজানো হয়। এ দিনের মিছিলে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল, জেলার সহ-সভাপতি অভিজিৎ সিংহ, আরেক সহ-সভাপতি মলয় মুখোপয়াধ্যায়, সিউড়ি বিধানসভার বিধায়ক অশোক চট্টোপাধ্যায়, সাঁইথিয়া বিধানসভার বিধায়ক নীলাবতি সাহা, দুবরাজপুর বিধানসভার বিধায়ক নরেশ বাউরি, সিউড়ি পুরসভার পুরপ্রধান উজ্জ্বল চট্টোপাধ্যায়-সহ বিভিন্ন ব্লকের সভাপতি ও কয়েক হাজার নেতাকর্মী।

এ দিন মিছিল সিউড়ির চাঁদমারি ময়দান থেকে শুরু হয়। মিছিল বাসস্ট্যান্ডের সামনে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ের সামনে হয়ে মসজিদ মোড়ে যায়, সেখানেই মিছিল শেষ হয়। এ দিনের মিছিলে অনুব্রত একটি হুড খোলা গাড়িতে করে সারা শহর পরিক্রমা করেন। মিছিল শেষ হওয়ার আগে অনুব্রত দলের কর্মী ও পথচলতি মানুষের উদ্দেশ্যে বক্তৃতাও করেন। যেখানে তিনি সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জির তীব্র বিরোধিতা করেন। তাঁর কথায়, ‘‘শরীরে এক বিন্দু রক্ত থাকতে এনআরসি এবং সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন পশ্চিমবঙ্গে করতে দেব না। হিন্দু মুসলিম সকলেই পশ্চিমবঙ্গে একসঙ্গে থাকবে।“ নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘‘আমার মনে হয় নরেন্দ্র মোদী ও অমিত শাহের মাথায় গোবর আছে।’’ বিজেপির জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডল পাল্টা বলেন, ‘‘উনি জেলা সভাপতি হয়ে দেশের প্রধানমন্ত্রী ও একটি সর্বভারতীয় দলের সভাপতিকে নিয়ে মন্তব্য করছেন, তাঁর এই দুঃসাহস হয় কী করে! আমার মনে হয় উনি পাগল হয়ে গিয়েছেন।’’ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনে দলের তরফে প্রচার চালানো হচ্ছে বলেও জানান শ্যামাপদ।

Advertisement
Advertisement