×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৭ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

সংঘাত বিজেপি-তৃণমূলে

নিজস্ব সংবাদদাতা
সদাইপুর ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০১:৩১
—প্রতীকী চিত্র।

—প্রতীকী চিত্র।

একটি রাস্তা নির্মাণে বেনিয়মের অভিযোগকে কেন্দ্র করে সংঘাতে জড়ালো তৃণমূল-বিজেপি। দু’পক্ষের মধ্যে হাতাহাতিতে জখম পাঁচ। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে সদাইপুরের পানুরিয়া গ্রামে। পুলিশ পৌঁছে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে এলেও গ্রামে উত্তেজনা রয়েছে। দু’পক্ষই পরস্পরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছে।

সিউড়ি ১ ব্লকের ভূরকুনা পঞ্চায়েতের ওই গ্রামে দিন কয়েক আগে থেকে একটি রাস্তার কাজ শুরু হয়। পানুরিয়া বিশ্রামতলা লাগোয়া পাড়ায় ওই কংক্রিটের রাস্তাটি ৮১ মিটার দৈর্ঘের প্রায় ৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মিত হওয়ার কথা। কিন্তু রাস্তাটি নিয়ম মেনে হয়নি এই অভিযোগে এ দিন সকালে কাজ বন্ধ করে বিজেপি সমর্থকেরা। এরপরই দু’পক্ষের মধ্যে সংঘাত বাধে।

বিজেপির অভিযোগ, রাস্তার কাজে কর্মদিবস তৈরি করার কথা থাকলেও প্রথমে মেশিন দিয়ে মাটি কাটার কাজ হয়েছিল। কেন এমনটা হল সেটা জানতে সোমবারই স্থানীয় পঞ্চায়েত গিয়ে সদুত্তর না পেয়ে রাস্তার কাজ আটকাই। স্থানীয় বিজেপি নেতা তাপস দুলুই ব্লক সভাপতি অমিত সাহানাদের দাবি, এরপরই স্থানীয় বাসিন্দা তথা উপপ্রধান অশোক বাউড়ির নেতৃত্বে হামলা চলে। নিশিকান্ত আধিকারী, মহম্মদ সালেম ও জুমনা খান তিন কর্মী আঘাত পান। অন্য দিকে উপপ্রধান অশোকবাবু বিজেপির উপরে প্রথম হামলা করার অভিযোগ আনছেন। তাঁর দাবি, ‘‘প্রথমে মারপিঠ শুরু হয় বিজেপির দিক থেকে। আমাদের দুই কর্মী লাল্টু বাউড়ি এবং রফিকুল মোল্লারা আঘাত পান। খবর পেয়ে পুলিশ আসে।’’ কিন্তু যে অভিযোগকে কেন্দ্র করে সংঘাত, সেটা কী সত্যি। উপপ্রধান বলেন, ‘‘পুরো কাজটাই শ্রমিকরা করেছে। তবুও যদি আপত্তি ছিল, কেন তখন প্রতিবাদ করল না। রাস্তা ঢালাইয়ের কাজ শেষ পর্যায়ে বাধা দিলে কী করে হবে।’’

Advertisement
Advertisement