Advertisement
১৯ জুন ২০২৪
Didir Suraksha Kavach

আবার বীরভূম! অনুব্রতের জেলায় ক্ষোভের মুখে ‘দিদির দূত’, পাশ কাটিয়ে চলে গেলেন বিধায়ক

শুক্রবার সিউড়ির আলুন্দা পঞ্চায়েতের জুনিদপুর গ্রামে যান বিকাশ। বিধায়কের কাছে গ্রামবাসীদের অভিযোগ, আবাস যোজনার বাড়ি তৈরির জন্য অনেকের থেকে ‘কাটমানি’ নিয়েছেন তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান।

ক্ষোভের মুখে তৃণমূল বিধায়ক বিকাশ রায়চৌধুরী।

ক্ষোভের মুখে তৃণমূল বিধায়ক বিকাশ রায়চৌধুরী। নিজস্ব ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
সিউড়ি শেষ আপডেট: ২৭ জানুয়ারি ২০২৩ ১২:৪২
Share: Save:

দিন কয়েক আগেই ‘দিদির সুরক্ষা কবচ’ কর্মসূচিতে গিয়ে গ্রামবাসীদের বাধার মুখে পড়েছিলেন অনুব্রত মণ্ডলের জেলা বীরভূমের তৃণমূল বিধায়ক। গ্রামে ঢোকার পথে বাঁশ, গাছ ফেলে রেখে তাঁর পথ আটকে দেওয়া হয়েছিল। শুক্রবার ‘দিদির দূত’ সিউড়ির বিধায়ক সেই বিকাশই আবার বিক্ষোভের মুখে পড়লেন। চারপাশ ঘিরে গ্রামবাসীদের অভিযোগ আর বিধায়কের অনুগামীদের লাগাতার স্লোগানের জেরে এলাকায় শোরগোল তৈরি হয়। তার মধ্যে পাশ কাটিয়ে বেরিয়ে যেতে দেখা গেল বিকাশকে!

শুক্রবার সিউড়ির আলুন্দা পঞ্চায়েতের জুনিদপুর গ্রামে যান বিকাশ। বিধায়কের কাছে গ্রামবাসীদের অভিযোগ, আবাস যোজনার বাড়ি তৈরির জন্য অনেকের থেকে ‘কাটমানি’ নিয়েছেন তৃণমূলের পঞ্চায়েত প্রধান। যাঁরা অভিযোগ করেছেন, তাঁদের অধিকাংশই নিজেদের তৃণমূল কর্মী বলে পরিচয় দিয়েছেন। এলাকার নিকাশি ব্যবস্থার বেহাল দশা নিয়েও কেউ কেউ অভিযোগ করেন। সেই সময়েই বিধায়কের অনুগামী এবং তৃণমূল কর্মীদের স্লোগান শুরু হয়। স্থানীয়দের অভিযোগ, স্লোগানের ঠেলায় বিধায়কের কাছে অনেকেই অভিযোগ জানাতে পারেননি। তার আগেই সেখান থেকে বেরিয়ে যান বিকাশ। যদিও স্থানীয় সূত্রে দাবি, পরে স্থানীয় একটি ক্লাবে বসে গ্রামবাসীদের অভাব-অভিযোগ শোনেন বিধায়ক।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে বিকাশ বলেন, ‘‘এখানে কোনও ক্ষোভ নেই। এটা তৃণমূলের পরিবার। ওঁরা তৃণমূলের সঙ্গে আছে, তৃণমূলের সঙ্গেই থাকবে। তবে কেউ ভুল করলে পদক্ষেপ করা হবে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Didir Suraksha Kavach Birbhum
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE