×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৫ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

ময়ূরেশ্বের বিস্ফোরণের অভিযোগ ঘিরে শুরু রাজনৈতিক তরজা

নিজস্ব সংবাদদাতা
সিউড়ি ১৫ ডিসেম্বর ২০২০ ২১:৫৮
বিস্ফোরণে এই ঘরটির চাল উড়ে গিয়েছিল বলে অভিযোগ। নিজস্ব চিত্র।

বিস্ফোরণে এই ঘরটির চাল উড়ে গিয়েছিল বলে অভিযোগ। নিজস্ব চিত্র।

বীরভূমে ময়ূরেশ্বরে এক তৃণমূল নেতার বাড়ির সামনে চালা ঘরে বিস্ফোরণের অভিযোগ ঘিরে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। বিজেপির অভিযোগ তৃণমূলের মদতে বোমা বাঁধা হচ্ছিল। বোমা বাঁধতে গিয়ে সেখানে বিস্ফোরণে ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিস্ফোরণের পর দীর্ঘক্ষণ সেখানে কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। ওই সময় সব প্রমাণ লোপাট করা হয়েছে। তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ বিজেপি ভোটের আগে মিথ্যা প্রচারে নেমেছে। বীরভূম জেলা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১ জনকে গ্রেফতার করেছে বলে জানা গিয়েছে।

ময়ূরেশ্বরের ষাটপলশা গ্রামে স্থানীয় তৃণমূল নেতা জটিলেশ্বর মণ্ডলের বাড়ির সামনে একটি পাকা দেওয়াল ও অস্থায়ী ছাউনির ঘর রয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে এক বিস্ফোরণের শব্দ হয় বলে অভিযোগ। সেই বিস্ফোরণের তীব্রতায় নাকি উড়ে গিয়েছিল অ্যাজবেস্টসের চালটি। কিন্তু তার পর প্রায় ২ ঘণ্টা গ্রামে বাইরের কাউকে ঢুকতে দেওয়া হয়নি এবং তার মাঝে ঘটনাস্থল থেকে সব প্রমাণ লোপাট করা হয়েছে বলে অভিযোগ। এবং ঘরটিতে খড়ের ছাউনি দিয়ে দেওয়া হয়েছে। গোটা বিষয়টি তৃণমূল ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ বিজেপির।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় রামপুরহাটের পুলিশ। জেলা পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে ঘটনাস্থল থেকে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে তাঁর কাছ থেকে ১৫টি তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে।

Advertisement

বিজেপি জেলা সভাপতি শ্যামাপদ মণ্ডলের অভিযোগ, এই বিস্ফোরণের জন্য জন্য সরাসরি তৃণমূল দায়ী। শ্যামাপদ দাবি করেন, এক তৃণমূল নেতার বাড়ির সামনে বিস্ফোরণ ঘটে গেল আর তিনি কিছু জানেন না? এই কাজের পিছনে জটিলেশ্বরেরই হাত রয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বিজেপির অভিযোগ বাইরে থেকে দুষ্কৃতী এনে বোমা বাঁধার কাজ হচ্ছিল। সেই সময় বিস্ফোরণ ঘটে।

যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বে। জটিলেশ্বরের দাবি, এমন কোনও ঘটনাই ঘটেনি সেখানে। গ্রামে কালী পুজোর বিসর্জন রয়েছে। তারই বাজি ফাটছিল। সেই শব্দ শুনেই বেজেপি ভেবেছে বোমা ফেটেছে। ভিত্তিহীন অভিযোগ করছে বিজেপি।

Advertisement