Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

শিক্ষকের ‘মারধরে’ অসুস্থ ছাত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
লাভপুর ২৯ জুলাই ২০১৮ ০১:২৬
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

টিফিনের পরে ক্লাসে ফিরতে দেরি হওয়ায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে। শুক্রবার ঘটনাটি ঘটে লাভপুরের ঠিবা অঞ্চল হাইস্কুলে। স্কুল ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই স্কুলে এক ঘণ্টা টিফিন। টিফিনে অন্য পড়ুয়াদের মতো বাড়িতে খেতে যায় দশম শ্রেণির ছাত্র কাজীপাড়ার বাসিন্দা হুমায়ূন কবীর। টিফিনের পরে ছিল প্রবীরকুমার রুজের ভৌতবিজ্ঞানের ক্লাস। ওই ছাত্রের অভিযোগ, ‘‘বাড়ি থেকে ফিরতে আমার মিনিট পাঁচেক দেরি হয়ে যায়। ক্লাসে ঢোকার অনুমতি চাইতেই স্যার প্রথমে আমাকে থাপ্পড় মারেন। আমি মাটিতে পড়ে যাই। তার পরেও উনি আমাকে বেতের লাঠি দিয়ে পেটান। আমি অসুস্থ হয়ে পড়ি।’’

ওই ছাত্রের বাবা কাজী বদিউদজ্জামান ওরফে কুদ্দুস কাজী বলেন, ‘‘খবর পেয়ে আমি স্কুলে যাই। প্রধান শিক্ষক ও অন্য কয়েক জন শিক্ষক ছেলের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা দূরে থাক, আমাদের গলা ধাক্কা দিয়ে স্কুল থেকে বের করে দেন। পরে আমি ছেলেকে লাভপুর গ্রামীণ হাসপাতালে ভর্তি করাই।’’ শুক্রবার রাতেই পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ জানান তিনি।

প্রবীরবাবু অবশ্য বলেছেন, ‘‘আমি অনুতপ্ত। আসলে ছেলেটি বার বার স্কুলের শৃঙ্খলাভঙ্গ করছিল। সতর্ক করেও লাভ হয়নি। তাই ছেলেমেয়ের মতোই শাসন করেছি।’’

Advertisement

প্রধান শিক্ষক দেবাশিস মিশ্র গলা ধাক্কা দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্কুল চলাকালীন কিছু লোক গোলমাল করার চেষ্টা করেছিল। স্কুল চলছে বলে তাঁদের ছুটির পরে আসতে বলা হয়। ছেলেটিকে ওষুধও লাগিয়ে দেওয়া হয়। পুলিশ জানায়, অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

আরও পড়ুন

Advertisement