Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

Bidyut Chakrabarty: উপাচার্যকে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ! বিশ্বভারতীর অনলাইন বৈঠকে বিড়ম্বনা

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশ্বভারতীর আধিকারিক এবং কর্মীদের নিয়ে বৈঠক চলছিল। সে সময়ই অজানা অ্যাকাউন্ট থেকে কেউ বা কারা ঢুকে পড়েন।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শান্তিনিকেতন ১২ জানুয়ারি ২০২২ ১১:৪৩
 উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।

উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।
ফাইল ছবি।

বিশ্বভারতীর অনলাইন বৈঠকে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ করা হল উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তীকে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিশ্বভারতীর আধিকারিক এবং কর্মীদের নিয়ে মিউজিক থেরাপি চলছিল। অনলাইনে চলছিল সেটি। সে সময়ই ওই বৈঠকে অজানা অ্যাকাউন্ট থেকে কেউ বা কারা ঢুকে পড়েন এবং উপাচার্যকে কদর্য ভাষার গালি দিতে থাকেন। পরে অবশ্য বৈঠক থেকে বার করে দেওয়া হয়েছিল ওই অ্যাকাউন্ট। তবে ঘটনার জেরে চরম বিড়ম্বনায় পড়েছিলেন বৈঠকে উপস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়ের আধিকারিকেরা। ঘটনার অডিয়ো ক্লিপ ইতিমধ্যেই ছড়িয়েছে নেটমাধ্যমে। যদিও ওই অডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি আনন্দবাজার অনলাইন।

বিভিন্ন মন্তব্য করে গত কয়েক বছর ধরেই বিতর্কে জড়িয়েছেন বিশ্বভারতীর উপাচার্য বিদ্যুৎ চক্রবর্তী। তাঁকে নিয়ে ক্ষোভও রয়েছে আশ্রমিক থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক, কর্মী এবং পড়ুয়াদের একাংশের। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈঠক চলাকালীন এ ভাবে নোংরা ভাষায় গালিগালাজের ঘটনা আগে ঘটেনি। ভাইরাল হওয়া অডিয়ো ক্লিপে শোনা যাচ্ছে, এক ব্যক্তিকে অশালীন ভাষায় আক্রমণ করছেন বিদ্যুৎকে। তার পর পরই আধিকারিকরা ওই অ্যাকাউন্টকে বৈঠক থেকে সরিয়ে দেওয়ার কথা বলছেন। এই ঘটনা তাঁদের কতটা বিড়ম্বনায় ফেলেছিল তাও বোঝা যাচ্ছে, তাঁদের কথা শুনেই।

বিশ্বভারতীর মতো একটি প্রতিষ্ঠানে কী ভাবে এমন ঘটনা ঘটল, সেই প্রশ্ন উঠছে। যে ব্যক্তি এটি ঘটিয়েছেন তিনি কী ভাবে অনলাইন মিটিংয়ের লিঙ্ক পেলেন, সেই প্রশ্ন উঠেছে। বিষয়টি নিয়ে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ কী ব্যবস্থা গ্রহণ করেন সেটাই এখন দেখার। যদিও কর্তৃপক্ষ এখনও এ ব্যাপারে কিছু জানাননি। বারবার যোগাযোগ করা হলেও তাঁরা কোনও কথা বলতে রাজি হননি।

Advertisement


Tags:

আরও পড়ুন

Advertisement