Advertisement
১৬ জুলাই ২০২৪
West Bengal Weather

দক্ষি‌ণবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টি শুরু হচ্ছে শনিবার থেকেই! সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া, কী খবর উত্তরের?

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের সব ক’টি জেলাতেই শনিবার বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে ঘণ্টায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়াও বইতে পারে।

—ফাইল চিত্র ।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ জুন ২০২৪ ০৯:২৬
Share: Save:

শনিবার থেকেই ঝড়বৃষ্টি শুরু হতে পারে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে। বৃষ্টিতে ভিজতে পারে কলকাতাও। সঙ্গে ঝোড়ো হাওয়া বইতে পারে ৩০-৪০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে। তেমনটাই পূর্বাভাস হাওয়া অফিসের। তবে শনিবারও দক্ষিণবঙ্গের পাঁচ জেলায় তাপপ্রবাহের সতর্কতা রয়েছে বলে আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে। শুক্রবার আবহবিদেরা জানিয়েছিলেন, শনিবার তাপপ্রবাহ থেকে মুক্তি পেতে পারে দক্ষিণবঙ্গ। তবে শনিবার সকালে হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, তাপপ্রবাহ চলতে পারে চার জেলায়।

আষাঢ়ের দোরগোড়ায় দাঁড়িয়ে এখনও দক্ষিণবঙ্গে বর্ষার দেখা মেলেনি। গত কয়েক দিন ধরে ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস করছেন কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের বাকি জেলাগুলির মানুষ। একাধিক জেলায় চলছে তাপপ্রবাহ। তাপমাত্রা ছাড়িয়ে যাচ্ছে ৪০ ডিগ্রির গণ্ডি। দহনজ্বালা সহ্য করতে না পেরে মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। এই পরিস্থিতিতে দক্ষিণবঙ্গে স্বস্তির আশ্বাস দিল হাওয়া অফিস। আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, শনিবার থেকেই ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দক্ষিণবঙ্গে।

আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের সব ক’টি জেলাতেই শনিবার বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে ঘণ্টায় ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়াও বইতে পারে। হাওয়ার বেগ কোথাও কোথাও হতে পারে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার। বৃষ্টিপাত চলতে পারে বুধবার পর্যন্ত। তবে শুক্রবার বৃষ্টির পাশাপাশি, পশ্চিম মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, এবং পশ্চিম বর্ধমান— এই পাঁচ জেলায় তাপপ্রবাহ হতে পারে শনিবার।

আবহবিদরা জানিয়েছেন, শনিবার মোটের উপর কলকাতার আবহাওয়া দিনের বেলা শুষ্কই থাকবে। আকাশ আংশিক ভাবে মেঘলা থাকার কারণে গরম অনুভূত হবে। তবে বিকেলের পর থেকেই শুরু হতে পারে ঝড়বৃষ্টি।

দক্ষিণ যখন গরমে কাহিল, তখন অন্য পরিস্থিতি উত্তরবঙ্গে। সেখানে বর্ষা ঢুকে গিয়েছে জুনের প্রথম সপ্তাহেই। গত কয়েক দিন প্রবল বৃষ্টি চলছে উত্তরের জেলাগুলিতে। সেখানে বন্যা পরিস্থিতি তৈরির সম্ভাবনাও রয়েছে। টানা বৃষ্টিতে ধস নেমেছে পাহাড়ে। সিকিমে আটকে পড়েছেন পর্যটকেরা। তিস্তার জল ক্রমশ বাড়ছে। এর মাঝে শনিবারও আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি এবং কালিম্পং— তিন জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। এই তিন জেলায় ঝড়বৃষ্টির লাল সতর্কতাও জারি করা হয়েছে। এ ছাড়া দার্জিলিং এবং কোচবিহারেও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। ওই জেলা দু’টিতে বৃষ্টিপাতের কমলা সতর্কতা জারি করা হয়েছে। উত্তরবঙ্গের পাহাড়ঘেঁষা এই পাঁচ জেলায় বৃষ্টি চলবে আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত। বৃষ্টি হতে পারে ৭ থেকে ২০ সেন্টিমিটার। উত্তরবঙ্গের জন্য প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করতে বলেছে হাওয়া অফিস।

দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা ঢুকছে কবে? শুক্রবার তা-ও জানিয়ে দিয়েছে হাওয়া অফিস। মৌসম ভবনের পূর্বাভাস, আগামী চার-পাঁচ দিনের মধ্যে বর্ষা আসতে পারে দক্ষিণবঙ্গে। আবহবিদেরা জানিয়েছেন, দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু আগামী চার-পাঁচ দিনের মধ্যে ওড়িশা, অন্ধ্র উপকূল, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের কিছু অংশ এবং বিহারের কিছু অংশে অগ্রসর হতে পারে। ফলে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ এবং উত্তরবঙ্গের বাকি জায়গায় বর্ষা ঢোকার অনুকূল পরিবেশ রয়েছে। তবে তার আগে শনিবার থেকে দক্ষিণবঙ্গের সব জেলা প্রাক্‌-বর্ষার বৃষ্টিতে ভিজতে পারে বলে আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE