×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৮ মে ২০২১ ই-পেপার

সারদার টাকা ফেরত দিতে ইডি দফতরে শতাব্দী, ফের তলব রাজীব কুমারকে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৮ অগস্ট ২০১৯ ১৬:১৯
তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। —নিজস্ব চিত্র।

তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। —নিজস্ব চিত্র।

টাকা ফেরত দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করে চিঠি দিয়েছিলেন আগেই। বৃহস্পতিবার সেই বিষয়ে চূড়ান্ত কথা বলতে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)-এর দফতরে গেলেন তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। অন্য দিকে, এ বার রোজভ্যালি মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কলকাতার প্রাক্তন পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে তলব করল সিবিআই

সারদা গোষ্ঠীর সঙ্গে টাকা লেনদেনের সূত্র ধরে এর আগেই ইডি এবং সিবিআই বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ, অভিনেত্রী শতাব্দী রায়কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করেছিল। সিবিআই এবং ইডি সূত্রে খবর, প্রথম থেকেই তিনি তদন্তে সহযোগিতা করেছিলেন। ইডি আধিকারিকদের দাবি, সারদা গোষ্ঠী থেকে শতাব্দী প্রায় ২৯ লাখ টাকা পেয়েছিলেন। ইডি সূত্রে জানা গিয়েছে, তিনি তদন্তকারীদের জানিয়েছেন যে, সারদা গোষ্ঠীর সঙ্গে তাঁর ব্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসাবে চুক্তি হয়েছিল। সেই চুক্তি অনুযায়ী ওই টাকা তিনি সুদীপ্ত সেনের সংস্থার কাছ থেকে পেয়েছিলেন।

সূত্রের খবর, তদন্ত চলাকালীনই গত মাসের শেষ সপ্তাহে শতাব্দী ইডি আধিকারিকদের চিঠি দিয়ে জানান যে, তিনি সারদা থেকে পাওয়া টাকা ফেরত দিতে আগ্রহী। এর আগে ইডি, সারদা মামলায় বক্তব্য রেকর্ড করে অভিনেতা এবং প্রাক্তন তৃণমূল সাংসদ মিঠুন চক্রবর্তীর। ইডির তদন্তে উঠে এসেছিল, মিঠুনের সঙ্গেও সারদা গোষ্ঠীর আর্থিক লেনদেন। মিঠুনও সেই টাকা ফেরত দিয়ে দেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: শক্তি বাড়াচ্ছে নিম্নচাপ, আরও ভারী বৃষ্টিপাত কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে, জানাল আবহাওয়া দফতর

একই পথে শতাব্দী রায়ও টাকা ফেরতের কথা জানান ইডিকে। বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ তিনি সল্টলেকের ইডি দফতরে পৌঁছন। তিনি এ দিন ইডি দফতরে ঢোকার সময়ে কোনও মন্তব্য করেননি। তবে ইডি সূত্রে খবর, জুলাই মাসে তাঁকে তলব করা হলে তিনি সময় চেয়েছিলেন। সেই সমনের জের ধরেই শতাব্দী এ দিন ইডি অফিসে হাজিরা দেন। সেই সঙ্গে টাকা ফেরতের বিষয় নিয়ে ইডি আধিকারিকদের সঙ্গে আইনি পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করেন।

আরও পড়ুন: ‘দল থেকে কেন দূরে, সবাই জানেন’, মন্তব্য শোভনের

প্রায় আড়াই ঘণ্টা ইডি দফতরে কাটানোর পর বেরোনর সময় শতাব্দী বলেন, ‘‘ইডি আমার কাছে কিছু নথি চেয়েছিল। সেই নথি জমা দিলাম।ভবিষ্যতে ফের ডাকলে আবার আসব।” তবে টাকা ফেরতের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে শতাব্দী রায় দাবি করেন, ওই বিষয়ে এ দিন কোনও কথা হয়নি।

অন্য দিকে, রোজভ্যালি মামলাতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নোটিস পাঠানো হয় রাজীব কুমারকে। সিবিআই সূত্রে খবর, শীর্ষ আদালতে দেওয়া হলফনামায় রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে রোজভ্যালি মামলাতেও সিবিআইয়ের কাছে তথ্য গোপন করার অভিযোগ করেছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। চিটফান্ড তদন্তের জন্য রাজ্য সরকার গঠিত সিটের অন্যতম প্রধান আধিকারিক হিসাবে রোজভ্যালির বিরুদ্ধে হওয়া মামলা সিবিআইকে জানানো হয়নি বলে অভিযোগ। সেই সূত্র ধরেই তাঁকে তলব করা হয়। তবে সিবিআই সূত্রে খবর, ওই পুলিশ কর্তা বৃহস্পতিবার চিঠি দিয়ে সিবিআইয়ের কাছে সময় চেয়েছেন।

Advertisement