Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
Shahjahan Sheikh

‘গ্রেফতার করবেন না বলুন, তা হলেই হাজিরা দেব’, শাহজাহানের আর্জিতে ‘কলা খাইনি’ দেখছে ইডি

সোমবার ইডি দফতরে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল শাহজাহান শেখের। এই নিয়ে তৃতীয় বার তিনি হাজিরা এড়ালেন। শাহজাহানকে খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না। প্রায় দেড় মাস ধরে তিনি ‘নিখোঁজ’।

Shahjahan Sheikh appeals for protection from ED in court

সন্দেশখালির তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখ। —ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৪:৪৮
Share: Save:

সন্দেশখালির তৃণমূল নেতা শাহজাহান শেখ আদালতে গ্রেফতার না হওয়ার নিশ্চয়তা চেয়েছেন। তিনি জানান, ইডি যদি তাঁকে গ্রেফতার করা হবে না বলে নিশ্চয়তা দেয়, তা হলেই তিনি তাদের দফতরে হাজিরা দেবেন।

উল্লেখ্য, সোমবার ইডি দফতরে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল শাহজাহানের। এই নিয়ে তৃতীয় বার তিনি হাজিরা এড়ালেন। শাহজাহানকে খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না। আইনজীবী মারফত আদালতে নিজের বক্তব্য জানাচ্ছেন তিনি।

সোমবার আদালতে তাঁর আগাম জামিনের আবেদনের শুনানি ছিল। শাহজাহানের আইনজীবী জানান, ইডি যদি বলে তাঁর মক্কেলকে গ্রেফতার করা হবে না, তা হলে তিনি হাজিরা দিতে পারেন। অথবা আদালতে এই আবেদনের নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত ইডি তাঁর বিরুদ্ধে সমন জারি করা থেকে বিরত থাকুক। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ২৩ ফেব্রুয়ারি।

বিচারক শাহজাহানের আইনজীবীকে প্রশ্ন করেন, কেন ইডির ডাকে সাড়া দিয়ে তিনি হাজিরা দিচ্ছেন না? উত্তরে আইনজীবী বলেন, ‘‘শাহজাহানের বিরুদ্ধে ওঁরা দুর্নীতির টাকা বিদেশে পাঠানোর অভিযোগ করছেন। আমার মক্কেলকে প্রভাবশালী, মন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব বলছেন। আগাম জামিন দেওয়া হচ্ছে না। তাই আমার মক্কেল গ্রেফতার হওয়ার আশঙ্কা করছেন।’’

ইডির আইনজীবী বলেন, ‘‘এটা তো ‘ঠাকুরঘরে কে, আমি তো কলা খাইনি’-র মতো বিষয় হয়ে গেল। ওঁর (পড়ুন শাহজাহানের) বাড়িতে কেবল তল্লাশি চালাতে যাওয়া হয়েছিল। আমাদের দিকে পাথর ছোড়া হয়েছে, আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এত কিছুর পরে আমরা কোনও দায়িত্ব নিতে পারব না।’’

গত ৫ জানুয়ারি শাহজাহানের বাড়িতে রেশন ‘দুর্নীতি’র তদন্তের সূত্রে তল্লাশি চালাতে গিয়েছিল ইডি। সে দিন শাহজাহানের দেখা মেলেনি। তাঁর বাড়ির বাইরে মার খেতে হয় কেন্দ্রীয় আধিকারিকদের। অভিযোগ, বাড়ির ভিতর থেকেই ফোন করে অনুগামীদের জড়ো করেন শাহজাহান। তার পর পিছনের দরজা দিয়ে পালিয়ে যান। তার পর আরও এক বার তাঁর বাড়িতে গিয়েছিল ইডি। তালা ভেঙে তল্লাশিও চালানো হয়। কিন্তু সে দিন উল্লেখযোগ্য কিছু পাওয়া যায়নি।

শাহজাহানের গ্রেফতারি চেয়ে সন্দেশখালিতে গত বুধবার থেকে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে এলাকায় অত্যাচারের অভিযোগ রয়েছে। তাঁর গ্রেফতারির দাবি জানিয়ে পথে নেমেছেন মহিলারা। যা নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে উত্তপ্ত সন্দেশখালি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE