×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বুধবার দুর্গে হানা, বৃহস্পতিবার গড়রক্ষায় কাঁথিতে নামছেন শুভেন্দু

নিজস্ব সংবাদদাতা
কাঁথি ২৩ ডিসেম্বর ২০২০ ২১:২৪
শুভেন্দু অধিকারী

শুভেন্দু অধিকারী

বিজেপি-তে যোগ দেওয়ার পর তাঁর নিজের শহর কাঁথিতে প্রথম মহামিছিল। বৃহস্পতিবার বিজেপি-র সেই কর্মসূচিতে অংশ নেবেন শুভেন্দু অধিকারী। তার আগে বুধবার কাঁথিতেই মিছিল ও জনসভা করেছে তৃণমূল। সেখান থেকে শুভেন্দুকে ‘মিরজাফর’, ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে আক্রমণ করা হয়। তৃণমূলের মিছিল ও সভায় লোকও হয়েছিল প্রচুর। ফলে বৃহস্পতিবার ঘরের মাঠে শাসক দলকে টেক্কা দেওয়াই এখন চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর।

বিজেপি সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার তাঁদের মিছিল শুরু হচ্ছে বেলা ২টো নাগাদ। কাঁথি-মেচেদা বাইপাস থেকে। এর পর মিছিলটি ধীরে ধীরে এগিয়ে যাবে রাজাবাজার হয়ে শুভেন্দুর বাড়ির পাশ থেকে কলেজ রোড ধরে সেন্ট্রাল বাসস্ট্যান্ডের দিকে। বাসস্ট্যান্ডের কাছের ফাঁকা মাঠেই সভা হবে। বুধবার রাতেই সভার জন্য মঞ্চ বাঁধার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। এই সভা ‘ঐতিহাসিক’ হয়ে উঠবে বলেই কাঁথির বিজেপি নেতৃত্বের দাবি। বিজেপি-র কাঁথি সাংগঠনিক জেলা সূত্রে জানানো হয়েছে, প্রাথমিক ভাবে শুধুমাত্র পদযাত্রা করার পরিকল্পনা নিয়েছিল তারা। সেই কর্মসূচিতে শুধুমাত্র সাংসদ তথা বিজেপির যুব মোর্চা রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র খাঁর হাজির থাকার কথা ছিল। এর মধ্যেই গত ১৯ ডিসেম্বর শুভেন্দু মেদিনীপুরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দেন। তাই কাঁথি কর্মসূচিতে শুভেন্দুও অংশ নেবেন বলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

দল বদলের পরে মঙ্গলবারই বর্ধমানের পূর্বস্থলীতে প্রথম বার বিজেপির জনসভায় অংশ নেন শুভেন্দু। কিন্তু নিজের শহরে বৃহস্পতিবারই তাঁর প্রথম রাজনৈতিক কর্মসূচি। ফলে সেই মহামিছিল ঘিরে উত্তেজনার পারদ চড়ছে কাঁথিতে। বিজেপি-র দাবি, বৃহস্পতিবারের সভায় নজর কাড়বে জমায়েত। ৩৫ থেকে ৪০ হাজার কর্মী-সমর্থক শুভেন্দুর মিছিলে জড়ো হচ্ছেন বলেই দাবি স্থানীয় নেতৃত্বের। বিজেপি-র সাংগঠনিক জেলার সভাপতি অনুপ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, ওই মিছিলে শুভেন্দু ছাড়াও থাকবেন জয়প্রকাশ মজুমদার, সৌমিত্র খাঁ। এ ছাড়া ভারতী ঘোষও সভায় থাকতে পারেন। সেই সঙ্গে রাজ্য বিজেপি-র আরও কয়েক জন প্রথম সারির কর্মকর্তাদের আসার সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি তাঁর।

Advertisement

আরও পড়ুন: কাঁথি কারও জমিদারি নয়, শুভেন্দুর গড়ে দাঁড়িয়ে হুঙ্কার সৌগত-ফিরহাদের

বুধবার কাঁথির সভা থেকে শুভেন্দুকে ‘বিশ্বাসঘাতক’ এবং ‘মিরজাফর’-এর মতো বিশেষণে বিঁধেছেন তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। ‘‘কাঁথি কারও জমিদারি নয়,’’— বলেছেন সে কথাও। রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমও শুভেন্দুকে বিঁধেছেন। ‘‘বিজেপিতে যোগ দিয়ে শুভেন্দু নন্দীগ্রামের আন্দোলনকে অপমান করেছেন,’’ বলে মন্তব্য করেন তিনি। ফলে তৃণমূলের সভা যে তারে বেঁধে দিয়েছে রাজনৈতিক উত্তেজনা, কাঁথিতে বিজেপি কর্মসূচি তাকে কোথায় নিয়ে যায়, শুভেন্দুই বা কী জবাব দেন সে দিকেই তাকিয়ে সকলে।

আরও পড়ুন: সঙ্গীত মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ঢাকের তালে পা মেলালেন মমতা

Advertisement