Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
Calcutta High Court

TET recruitment case: শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি মামলা: উপেনের প্রস্তাব মেনে সিবিআইকে সিট গঠনের নির্দেশ আদালতের

বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশ, তদন্ত চলাকালীন সিটের সদস্যরা অন্য কোনও মামলার তদন্ত করতে পারবেন না। তদন্ত হবে আদালতের নজরদারিতে।

স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ মামলায় সিবিআই সিট গঠনের নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্টের

স্কুলে শিক্ষক নিয়োগ মামলায় সিবিআই সিট গঠনের নির্দেশ কলকাতা হাই কোর্টের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ জুন ২০২২ ১৮:৩৪
Share: Save:

স্কুলে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি মামলার তদন্তে সিবিআইয়ের প্রাক্তন অতিরিক্ত অধিকর্তা তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী উপেন বিশ্বাসের সুপারিশ মেনে বেশ কিছু নির্দেশ দিল কলকাতা হাই কোর্ট। উপেনের প্রধান সুপারিশ, দুর্নীতির তদন্তে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার এক যুগ্ম অধিকর্তার নেতৃত্বে সিবিআইয়ের সিট গঠন করা হোক। এই সুপারিশ গ্রহণ করে সিবিআইকে সিট গঠনের নির্দেশ দেয় আদালত।

Advertisement

মঙ্গলবার সিবিআই তদন্ত নিয়ে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় অসন্তোষ প্রকাশ করার পর বুধবার আদালতে সিবিআই জানায়, শুধু মাত্র স্কুলে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতির তদন্ত করতেই দিল্লি থেকে যুগ্ম অধিকর্তাকে নিয়ে আসা হয়েছে। এর পরেও সিবিআই তদন্তে মূল অপরাধীরা ধরা পড়বেন কি না, তা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেন বিচারপতি। উপেনও সিবিআইকে খোঁচা দিয়ে বলেন, ‘‘সিবিআই এখনও পর্যন্ত পিনকেই হেফাজতে নিতে পারল না। আর কিং পিন!’’ এর পরেই দুর্নীতির তদন্তে সিবিআই সিট গঠনের সুপারিশ করেন উপেন। তিনি আদালতকে বলেন, ‘‘সিবিআইয়ের জয়েন্ট ডিরেক্টর-সহ অন্য আধিকারিকদের নিয়ে শুধু মাত্র এই মামলার জন্য বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করা হোক। এই সিটের সব সদস্য শুধু এই মামলারই তদন্ত করবেন। তাঁরা অন্য কোনও মামলায় ব্যস্ত হতে পারবেন না। আদালতের নজরদারিতে তদন্ত করা প্রয়োজন। তা হলে প্রধানমন্ত্রীও প্রভাব খাটাতে পারবেন না। এই দুর্নীতির তদন্তে আমি সিবিআইয়ের সঙ্গে সব রকম সহযোগিতা করব।’’

গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ

গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ

প্রাক্তন সিবিআই কর্তার উপেনের এই সুপারিশের পরেই আদালতের নির্দেশ, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে অনিয়মের দুই মামলার তদন্তের জন্য একটি সিট গঠন করতে হবে সিবিআইকে। সিটের সদস্যদের নাম আদালতের কাছে জানাবে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এই তদন্ত চলাকালীন সিটের সদস্যরা অন্য কোনও মামলার তদন্ত করতে পারবেন না। এমনকি তাঁরা আদালতের অনুমতি ছাড়া এই মামলা ছেড়ে বেরিয়ে যেতেও পারবেন না। পুরো মামলার তদন্ত হবে আদালতের নজরদারিতে।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.