Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

TMC-BJP clash: সবুজ সাথীর সাইকেল ‘চুরি’ করে বিক্রির অভিযোগ, তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে নদিয়ায় গুলিবিদ্ধ ৪

নিজস্ব সংবাদদাতা
হাঁসখালি ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১১:১৬
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

সবুজ সাথীর সাইকেল চুরি করে বিক্রি করার অভিযোগকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র হয়ে উঠল নদিয়ার হাঁসখালির কৈখালি। বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে কমপক্ষে চার জন গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন।

তৃণমূলের অভিযোগ, সবুজ সাথীর সাইকেল চুরি করে তা বিক্রি করছিলেন বেনালি হাই স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তথা স্থানীয় বিজেপি নেতা বিমল বিশ্বাস ও তাঁর ভাই তপন বিশ্বাস। শনিবার বিষয়টি নজরে আসতে বাধা দেন জোড়াফুল শিবিরের নেতা-কর্মীরা। তা থেকেই ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় এলাকায়। বিজেপি কর্মীরা গুলিও চালিয়েছেন বলে অভিযোগ তৃণমূলের। গুলিতে আহত হয়েছেন তৃণমূলের বুথ সভানেত্রী শীলা বিশ্বাস ও তাঁর ছেলে শুভম বিশ্বাস। তাঁরা বর্তমানে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে ভর্তি।

অন্য দিকে, তৃণমূলের বিরুদ্ধেও গুলি চালানোর অভিযোগ এসেছে। বিজেপি-র দাবি বিমলের ভাই ও ভাইপোও গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় এক জনকে কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। কলকাতার এনআরএসে চিকিৎসাধীন অন্য জন।

Advertisement

গেরুয়া শিবিরের অভিযোগ, মিথ্যে অপবাদ দিয়ে এই ধরনের ঘটনা ঘটানো হচ্ছে। আর পুলিশ নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করছে। গত বিধানসভা নির্বাচনে ওই এলাকায় দল ভাল ফল করায় তৃণমূলের তরফে বার বার হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। শনিবার তৃণমূলের স্থানীয় নেত্রী শীলার স্বামী দলবল নিয়ে বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা চালান।

জোড়া ফুল শিবিরের পাল্টা বক্তব্য, সরকারি সাইকেল বেআইনি ভাবে বিক্রি করার প্রতিবাদ করায় তৃণমূলের উপর হামলা হয়েছে। এই অভিযোগ তুলে পরে শক্তিনগর জেলা হাসপাতালে রানাঘাট উত্তর-পূর্বের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক সমীর পোদ্দারের নেতৃত্বে বিক্ষোভ দেখান তৃণমূল কর্মীরা।

নদীয়া জেলা পুলিশ প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, ‘‘তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে বচসা ও গুলি চালানো ঘটনা ঘটেছে। আমরা তদন্ত শুরু করেছি। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি।’’

আরও পড়ুন

Advertisement