Advertisement
০৭ অক্টোবর ২০২২
Soumitra Khan

সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে ভোটে রিগিং করার হুমকির অভিযোগ, পুলিশের দ্বারস্থ তৃণমূল

সৌমিত্র বুধবার সভা মঞ্চ থেকে জানান, বিধানসভা ভোটে তাঁরা খণ্ডঘোষ বিধানসভায় তৃণমূল প্রার্থীক ৩০ হাজারের বেশি ভোট পেতে দেবেন না।

সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে বর্ধমান পূর্বের জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারকে অভিযোগ তৃণমূলের।

সৌমিত্র খাঁয়ের বিরুদ্ধে বর্ধমান পূর্বের জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপারকে অভিযোগ তৃণমূলের। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান শেষ আপডেট: ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:০২
Share: Save:

অভিযোগ, বুধবার খণ্ডঘোষে বিজেপি-র ‘পরিবর্তন যাত্রা’ থেকে রিগিং করে বিধানসভা ভোটে জেতার হুমকি দিয়েছেন সৌমিত্র খাঁ। বৃহস্পতিবার তাই বিষ্ণুপুরের বিজেপি সাংসদের বিরুদ্ধে পূর্ব বর্ধমান জেলার পুলিশ সুপার এবং জেলাশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানাল রাজ্যের শাসকদল। পাশাপাশি, খণ্ডঘোষ থানা এবং সংশ্লিষ্ট ব্লকের বিডিও-র কাছেও এ বিষয়ে অভিযোগ জানানো হয়েছে।

বুধবার বিকেলে বিজেপি-র সেই পরিবর্তন যাত্রার রথ খণ্ডঘোষের সগড়াই এলাকায় পৌঁছায় । সেখানে বিজেপি জনসভায় করে। অভিযোগ, বিজেপি যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি সৌমিত্র সেই সভায় বক্তৃতা করতে গিয়ে বলেন, ‘বিধানসভা নির্বাচনে রিগিং করে জিতবে বিজেপি। আর সেই খেলা দেখবে তৃণমূল’।

বৃহস্পতিবার সৌমিত্রর বিরুদ্ধে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারের দপ্তরে লিখিত অভিযোগ জানান খণ্ডঘোষ ব্লক তৃণমূলের সভাপতি অপার্থিব ইসলাম । তাঁর অভিযোগ, খণ্ডঘোষের জনসভায় বিজেপি-র দলের কর্মী-সমর্থকদের ভোট লুটের পরামর্শ দিয়েছেন সৌমিত্র। অপার্থিবের দাবি, সৌমিত্র বুধবার সভা মঞ্চ থেকে বলেন, ‘এবারের বিধানসভা ভোটে তাঁরা খণ্ডঘোষ বিধানসভায় তৃণমূল প্রার্থীকে ৩০ হাজারের বেশি ভোট পেতে দেব না। ভোটের সময়ে বিজেপি-র লোকজন রিগিং করবে, আর সেটাই তৃণমূল কংগ্রেসের লোকজনকে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখতে হবে’।

অপার্থিব বলেন, ‘‘এবারের বিধানসভা নির্বাচনে এই খেলাই বিজেপি খেলবে আর সেটা তৃণমূল দেখবে বলে সৌমিত্র প্রকাশ্য জনসভা থেকে ঘোষণা করেছেন।“ সৌমিত্র তাঁকে এবং খণ্ডঘোষের বিধায়ক নবীনচন্দ্র বাগকে উদ্দেশ্য করে হুমকিও দিয়েছেন বলেও অপার্থিব অভিযোগপত্রে জানিয়েছেন। অপার্থিব আরও বলেন, ‘‘এক জন সাংসদ হয়ে সৌমিত্র ভোট লুটের কথা জনসভা থেকে কী ভাবে বলতে পারলেই সেটাই আশ্চর্যের। রিগিং করে ভোটে জেতা কিংবা ভোট লুটের কথা ঘোষণা করা বা উদ্বুদ্ধ করানো দু’টোই বেআইনি। এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে কার্যত নির্বাচনী ব্যবস্থাকে ভন্ডুল করতে চেয়ে সাংসদ স্বয়ং বেআইনি কাজটি করেছেন।’’

অপার্থিব জানান, সৌমিত্রের ঘোষণা বিষয়ে কেন্দ্রীয় কমিশনেও তিনি অভিযোগ জানাবেন। যাতে ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণার পর খণ্ডঘোষ বিধানসভা এলাকায় বিজেপি-র লোকজন সন্ত্রাস করতে না-পারে এবং বুথে বুথে ভোট লুট করতে না পারে। খণ্ডঘোষের বিধায়ক নবীনচন্দ্র বাগ বলেন, “সৌমিত্রর ঘোষণা থেকেই পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে বিজেপি ভোট লুট করেই ত্রিপুরা, অসম-সহ বিভিন্ন রাজ্যগুলিতে ক্ষমতা দখল করেছে। একই ভাবে ভোট লুট করেই বিজেপি বাংলায় ক্ষমতা দখল করতে চাইছে।’’ নবীনচন্দ্র জানান , সৌমিত্রের হুমকির বিষয়টি তিনি তৃণমূলের সর্ব্বোচ্চ নেতৃত্বকে জানিয়েছেন। তারাও এই বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছেন।’’

তৃণমূলের অভিযোগের বিষয়ে প্রতিক্রিয়ার জন্য সৌমিত্রের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে অন্য এক ব্যক্তি ফোন রিসিভ করে বলেন , “সাংসদ সৌমিত্র বাবু মিটিংয়ে ব্যস্ত রয়েছেন।’’ মিটিং শেষ না হওয়া পর্যন্ত সৌমিত্র কথা বলতে পারবেন না বলে তিনি জানিয়ে দেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.