Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২

দিল্লিতে কৌঁসুলি বরখাস্ত

নারদ কাণ্ডে নাস্তানাবুদ হওয়ার পরে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্যের অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড পারিজাত সিনহা এবং তাঁর সহযোগীদের সরিয়ে দিচ্ছে নবান্ন। শীঘ্রই নতুন আইনজীবী নিয়োগ করা হবে।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২২ মার্চ ২০১৭ ০৩:৪৭
Share: Save:

নারদ কাণ্ডে নাস্তানাবুদ হওয়ার পরে সুপ্রিম কোর্টে রাজ্যের অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড পারিজাত সিনহা এবং তাঁর সহযোগীদের সরিয়ে দিচ্ছে নবান্ন। শীঘ্রই নতুন আইনজীবী নিয়োগ করা হবে।

Advertisement

রাজ্যের আইন দফতরের এক কর্তা জানান, নারদ মামলা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে সওয়াল করার জন্য যে কৌশল নিয়েছিল নবান্ন— ওই সরকারি আইনজীবীর ভুল পদক্ষেপে তা কার্যকর করা যায়নি।

নারদ-কাণ্ড নিয়ে হাইকোর্টের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সোমবার সর্বোচ্চ আদালতে যায় রাজ্য সরকার এবং কয়েক জন অভিযুক্ত। নবান্নের খবর, কৌশল হিসাবে মঙ্গলবার অভিযুক্তদের আইনজীবীরাই সওয়াল করবেন বলে ঠিক ছিল।

এ দিন শুনানি শুরু হতেই অভিযুক্তদের আইনজীবীরা সওয়াল শুরু করেন। এর মধ্যে হঠাৎই রাজ্য সরকারের আইনজীবীও উঠে দাঁড়িয়ে সওয়াল শুরু করে দেন। আর তখনই মামলাকারীদের আইনজীবী হরিশ সালভে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতরের আবেদনের কিছু অংশ পড়ে শোনান, যাতে বলা হয়েছে— ‘হাইকোর্টের বিচারপতি পক্ষপাতদুষ্ট হয়ে রায় দিয়েছেন’। তা শুনেই ক্ষুব্ধ প্রধান বিচারপতি ক্ষমা চাইতে বলেন। রাজ্যের কৌঁসুলি ক্ষমা চেয়ে আবেদনটি ফিরিয়ে নেন। বলা হচ্ছে, সরকারি কৌঁসুলি আগ বাড়িয়ে সওয়াল না করলে এ ভাবে মুখ পুড়ত না। পারিজাতবাবুর ঘনিষ্ঠ মহল অবশ্য জানিয়েছে, আবেদনটি স্বরাষ্ট্র দফতর থেকেই তৈরি হয়ে এসেছিল।

Advertisement

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.