Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

‘সন্ত্রাসবাদের আশ্রয়’, রমনকে পাল্টা তৃণমূলের 

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ০০:৫১
ছত্তীসগঢ়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি রমন সিংহ। —ফাইল চিত্র।

ছত্তীসগঢ়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি রমন সিংহ। —ফাইল চিত্র।

পশ্চিমবঙ্গ সন্ত্রাসবাদীদের ‘নিরাপদ আশ্রয়স্থল’ বলে অভিযোগ করলেন ছত্তীসগঢ়ের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি রমন সিংহ। রাজ্যের মন্ত্রী তথা কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম অবশ্য ওই অভিযোগ উড়িয়ে বলেছেন, ‘‘এ রাজ্যে মুসলিম সন্ত্রাসবাদী জামাত এবং হিন্দু সন্ত্রাসবাদী আরএসএস— কোনওটাকেই মাথা তুলতে দেওয়া হয় না, হবেও না।’’

কলকাতার আইসিসিআর-এ রবিবার রাজ্য বিজেপির বিদ্বজ্জন শাখা আয়োজিত একটি আলোচনাচক্রে রমন বলেন, ‘‘ইউপিএ জমানায় দেশের বিভিন্ন অংশে যখন সন্ত্রাসবাদী হামলা হত, তখন ভাবতাম বাংলা কী ভাবে এর থেকে মুক্ত থাকতে পারছে? পরে বুঝেছি, এ রাজ্য আসলে সন্ত্রাসবাদীদের নিরাপদ আশ্রয়স্থল! তাদের এখানে মদত দেওয়া হয়। তারা এখানে অস্ত্রও মজুত করে।’’ রমনের দাবি, এনআইএ রিপোর্টেও জানা গিয়েছে, ২০১১ সাল থেকে এ রাজ্যে জামাত-উল-মুজাহিদিন জাল বিস্তার করছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার অনুপ্রবেশকারী এবং সন্ত্রাসবাদীদের প্রশ্রয় দেয় বলেও অভিযোগ করেন রমন। তবে তৃণমূল জমানায় মাওবাদী কার্যকলাপ কমেছে বলে মুখ্যমন্ত্রী মমতার প্রশংসাও করেছেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, ‘‘মাওবাদী কার্যকলাপ কমাতে পারা খুব ভাল পদক্ষেপ।’’

রমনের অভিযোগের জবাবে ফিরহাদ বলেন, ‘‘আসলে রমন সিংহ অপদার্থ বলেই ছত্তীসগঢ়ের মানুষ তাঁকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে। মাওবাদী সমস্যা থেকেও উনি ওঁর রাজ্যকে মুক্ত করতে পারেননি। আমাদের কাছে সব সন্ত্রাসবাদীই সন্ত্রাসবাদী। বাংলাদেশ থেকে কখনও কখনও যে দু’এক জন সন্ত্রাসবাদী ঢোকে, তাদের আমরাই ধরে এনআইএ-র হাতে তুলে দিই। এখানে সাম্প্রদায়িক সুড়সুড়ি দিয়ে লাভ নেই।’’

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement