Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

অধীরের পরামর্শ শুনলেন উমা

লকগেটের দৈন্যদশা থেকে মরসুমি ইলিশের টান, ফরাক্কা লাগোয়া গঙ্গার সৌন্দর্যায়ন কিংবা ডলফিন সাফারির ব্যবস্থাপনা— প্রায় সাড়ে চার দশকের পুরনো এই জলাধার নিয়ে অধীরের যাবতীয় অভিযোগ ও পরামর্শ, এ দিন মন দিয়ে শুনেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ০১ জুন ২০১৭ ১৩:০০
Share: Save:

ক্রমান্বয়ে পলি পড়ায়, ফরাক্কার অধিকাংশ লকগেট প্রায় অচল হয়ে গিয়েছে— কেন্দ্রীয় জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী উমা ভারতীর কাছে সরাসরি অভিযোগ করেছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী।

Advertisement

যা শুনে, নিছক বিরোধীদের ‘অভিযোগ’ বলে উড়িয়ে দেওয়া নয়, বরং, ফরাক্কায় ব্যারাজ কর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে, মঙ্গলবার অধীরকে পাশে বসিয়েই উমা জানিয়ে দিয়েছেন, ফরাক্কার সব ক’টি লকগেটের দুরবস্থা খতিয়ে দেখতে বর্ষার আগেই কমিটি গড়া হবে।

লকগেটের দৈন্যদশা থেকে মরসুমি ইলিশের টান, ফরাক্কা লাগোয়া গঙ্গার সৌন্দর্যায়ন কিংবা ডলফিন সাফারির ব্যবস্থাপনা— প্রায় সাড়ে চার দশকের পুরনো এই জলাধার নিয়ে অধীরের যাবতীয় অভিযোগ ও পরামর্শ, এ দিন মন দিয়ে শুনেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। কখনও বা বিভাগীয় কর্তাদের থামিয়ে দিয়ে ‘আপ বাতাইয়ে’ বলে জানতে চেয়েছেন অধীরের মতামত।

যার জেরে এ দিন বিকেল থেকেই শুরু হয়েছিল নানা ধরনের গুঞ্জন। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের স্থানীয় নেতাদের অনেকের কপালেই পড়েছিল ভাঁজ। অভিযোগ, জল্পনা শুরু হয়েছিল স্থানীয় চ্যানেলে, অধীর কি বিজেপির পথে!

Advertisement

যা শুনে বিস্মিত অধীর বলছেন, ‘‘বৈঠকটা ছিল জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের সঙ্গে জুড়ে থাকা পরামর্শদাতা কমিটির। নিয়ম মতো যার চেয়ারম্যান দফতরের মন্ত্রী এবং আমি ওই কমিটির এক জন সদস্য। সেখানে আমার যোগ না দেওয়াই তো অস্বাভাবিক।’’ জল্পনায় জল ঢেলে উমাও পরে বলে দিয়েছেন, ‘‘এর মধ্যে অন্য কোনও গন্ধ খোঁজা বোকামি। উনি (অধীর) স্থানীয় সাংসদ, ওঁর কাছেই তো পরামর্শ চাইব।’’

অধীরের ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গিয়েছে, উমার সঙ্গে বৈঠকের ব্যাপারে হাইকম্যান্ডেরও সবুজ সঙ্কেত পেয়েছিলেন অধীর।

গঙ্গা সাফাই কর্মসূচিতে গত কয়েক দিন ধরেই রাজ্যে প্রচার চালাচ্ছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। এ দিন সে জন্যই তাঁর ফরাক্কায় আসা। সেখানে পরামর্শদাতা কমিটির সদস্য হিসেবে তিনি আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন অধীরকে। বৈঠকে অধীর জানান, ফরাক্কার ৭৫ ফুটের গভীরতা পলি পড়ে এখন ১২-১৩ ফুটে দাঁড়িয়েছে। পলির চাপে বহু লকগেট খোলাই দায়। তাঁর কথা মেনে পলি সরানোর কাজেই অগ্রাধিকার দিতে চেয়েছেন জলসম্পদ মন্ত্রী। সৌন্দর্যায়নের সূত্রে এলাকায় কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে বলেও এ দিন দাবি করেছেন মন্ত্রী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.