×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৫ জুন ২০২১ ই-পেপার

‘লাইফ সাপোর্টে থাকা রোগী’, এ বার রাজ্যপালের খোঁচা রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানকে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১২:৩৪
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়— ফাইল চিত্র।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়— ফাইল চিত্র।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে ফের টুইটারে সুর চড়ালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। রাজ্যে মানবাধিকার পরিস্থিতির অবনতির অভিযোগ তুলে শনিবার তিনি নিশানা করলেন পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ, কলকাতা পুলিশ এমনকি, রাজ্য মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানকেও।

রাজ্যপাল এ দিন সকালে টুইটারে লেখেন, ‘‘পশ্চিমবঙ্গে সবচেয়ে বড় বলি হচ্ছে মানবাধিকার। আর তা সবচেয়ে বেশি হয় ভোটের সময়। বিরোধীদের ভয় দেখানো, আটক করার ঘটনা এখানে ‘ওপেন সিক্রেট’। আর যে সংস্থা অধিকার রক্ষার দায়িত্বে, সেই পশ্চিমবঙ্গ মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানই ‘লাইফ সাপোর্ট সিস্টেমে’ থাকা রোগী।’’

টুইটে মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি টুইটার হ্যান্ডলের পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ এবং কলকাতা পুলিশের টুইটার হ্যান্ডলকে ট্যাগ করেছেন রাজ্যপাল।

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘কৃষক বিরোধী’ মমতা: চি‌ঠি লিখে, টুইট করে তোপ ধনখড়ের

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার ধাঁচেই রাজ্যের মানবাধিকার এবং আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি শুধরানোর দাওয়াইয়ের কথাও এ দিন বলেছেন রাজ্যপাল। অন্য একটি টুইটে তাঁর মন্তব্য, ‘‘রাজভবন-সহ সমস্ত প্রতিষ্ঠানকে নপুংসক করার যে চেষ্টা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার চালাচ্ছে, তাতে সহায়তা করা চলবে না। ক্ষমতার অলিন্দকে দখলদার এবং গণতন্ত্রের বিপদগুলি থেকে মুক্ত করার জন্য স্যানিটাইজ করতে হবে। প্রতিষ্ঠানগুলিকে শক্তিশালী করার জন্য পর্যালোচনা চলবে।’’


প্রসঙ্গত, সোমবার রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ও মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে সরকার এবং পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের ডিজি-কে নিশানা করেছিলেন ধনখড়। লিখেছিলেন, শোচনীয় পরিস্থিতির মধ্যেও রাজ্য পুলিশের ডিজি উটপাখির মতো বালিতে মুখ গুঁজে রয়েছেন। এরপর মঙ্গলবার রাজ্যপাল টুইটারে অভিযোগ করেন, দেশের সব ক’টি রাজ্যে কৃষকরা ‘পিএমকিসান’ (প্রধানমন্ত্রী কিসান সম্মান নিধি) প্রকল্পের সুবিধা পেলেও পশ্চিমবঙ্গের কৃষকদেরকে সেই টাকা পেতে দিচ্ছে না রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন: অক্টোবরে বঙ্গ বিজেপি-র সঙ্গে বিশেষ বৈঠকে অমিত শাহ

Advertisement