Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

খালসা টিভিকে জরিমানা ব্রিটেনে

ব্রিটেনের সরকার অনুমোদিত সংবাদ-পর্যবেক্ষক সংস্থা দ্য অফিস অব কমিউনিকেশন (অফকম)।

সংবাদ সংস্থা
লন্ডন ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ০৭:৪৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
— ছবি সংগৃহীত

— ছবি সংগৃহীত

Popup Close

একটি মিউজ়িক ভিডিয়ো এবং একটি আলোচনা চক্রের মাধ্যমে শিখদের হিংসায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগে ব্রিটেনের খালসা টেলিভিশন লিমিটেডকে (কেটিভি) ৫০ হাজার পাউন্ডের জরিমানা করল ব্রিটেনের সংবাদমাধ্যম সংক্রান্ত একটি পর্যবেক্ষক সংস্থা। ওই টিভি নেটওয়ার্কটির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসযোগেরও অভিযোগ আনা হয়েছে।


২০১৯-এর নভেম্বর থেকে কেটিভি-র বিতর্কিত ওই দু’টি অনুষ্ঠান নিয়ে তদন্ত করছিল ব্রিটেনের সরকার অনুমোদিত সংবাদ-পর্যবেক্ষক সংস্থা দ্য অফিস অব কমিউনিকেশন (অফকম)। যার জেরেই কাল ওই জরিমানা সংক্রান্ত নির্দেশিকা জারি হয়েছে। ভবিষ্যতে এমন মিউজ়িক ভিডিয়ো কিংবা এই ধরনের আলোচনা চক্র আয়োজন বা সম্প্রচার করা যাবে না— এই মর্মে ওই চ্যানেলকে হলফনামা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে ওই নির্দেশিকায়। বলা হয়েছে ক্ষমা চেয়ে বিবৃতি দেওয়ার কথাও।


জানা গিয়েছে, ‘বাগ্গা অ্যান্ড শেরা’ নামের ওই বিতর্কিত মিউজ়িক ভিডিয়োটি ২০১৮-র ৪, ৭ এবং ৯ জুলাই সম্প্রচারিত হয়েছিল। অফকমের দাবি, তারা তদন্তে জানতে পেরেছেন ওই ভিডিয়োতে ব্রিটেনে বসবাসকারী শিখদের হিংসা এমনকি খুনের নেশায় মেতে ওঠারও পরোক্ষ প্ররোচনা দেওয়া হয়েছিল। অভিযোগ, ওই মিউজ়িক ভিডিয়ো চলাকালীন দর্শকদের প্রভাবিত করার (প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে) চেষ্টাও করেছিল খালসা টিভি। ভিডিয়োতে প্রাক্তন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গাঁধীর ছবি ব্যবহার করা হয়েছিল। অফকমের বক্তব্য, ওই ভিডিয়োয় ভারতের বিরুদ্ধেও তাণ্ডব চালানোর উস্কানি দেওয়া হয়ছিল ব্রিটেনে বসবাসকারী শিখদের।

Advertisement


আর বিতর্কিত ওই আলোচনা চক্রটি সম্প্রচারিত হয়েছিল ২০১৯-এর ৩০ মার্চ। সেখানে আমন্ত্রিত অতিথিদের প্রায় সবারই যুক্তি-বক্তব্য উস্কানিমূলক ছিল বলে দাবি তদন্তকারীদের। এমনকি ওই অনুষ্ঠানে ব্রিটেনের কুখ্যাত জঙ্গি সংগঠন বব্বর খালসার নামও উঠে আসে একাধিক বার। ওই মিউজ়িক ভিডিয়ো এবং এই আলোচনা চক্র নিয়ে দর্শকমহলের একাংশ আপত্তি তোলাতেই কেটিভি-র বিরুদ্ধে তদন্তে নামে অফকম।


বিতর্কিত আলোচনা চক্রটি পুরোটাই ছিল পঞ্জাবিতে। তদন্তের স্বার্থে অনুষ্ঠানের ইংরেজি তর্জমা করে মাঠে নামে অফকম। ব্রিটেনে বসবাসকারী শিখ গোষ্ঠীর মধ্যে প্রভূত জনপ্রিয় খালসা টিভি। চ্যানেলটির দাবি, সাংস্কৃতিক-শিক্ষামূলক-বিনোদন অনুষ্ঠানে তারা বরাবর স্বাধীন এবং সৎ পথেই থেকেছে এবং থাকবে। জরিমানা সংক্রান্ত নির্দেশিকা নিয়ে এখনও কোনও বিবৃতি দেয়নি তারা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement