×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৫ মে ২০২১ ই-পেপার

‘কোভিশিল্ডের উৎপাদন চলছে জোরকদমে‌’

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৩ মে ২০২১ ০৭:০৬
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

পুণের সিরাম ইনস্টিটিউটে করোনা প্রতিষেধক কোভিশিল্ড-এর উৎপাদন পুরোদমে চলছে বলে জানিয়ে দিলেন সংস্থার সিইও আদার পুনাওয়ালা। তিনি জানিয়েছেন, কয়েক দিনের মধ্যেই ব্রিটেন থেকে ফিরে এসে উৎপাদনের বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।

দেশে করোনা প্রতিষেধকের প্রবল সঙ্কটের মধ্যে পুনাওয়ালার এই বক্তব্য তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ, গত কালই তিনি জানিয়েছেন, ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের মধ্যে প্রতিষেধকের জোগান দিতে চাপের মধ্যে রয়েছে তাঁর সংস্থা। ব্রিটেনের একটি সংবাদপত্রকে সাক্ষাৎকার দিয়ে পুনাওয়ালা জানিয়েছেন, ভ্যাকসিন সরবরাহের জন্য প্রভাবশালী অনেকের থেকেই ফোন পেয়েছেন তিনি। এই তালিকায় ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরাও রয়েছেন। পুনাওয়ালা বলেন, ‘‘আমাকে অতিরিক্ত সময় লন্ডনে থেকে যেতে হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে ভারতে ফিরে যেতেও চাইছি না। কারণ, সব কিছুই আমার ঘাড়ে রাখা হচ্ছে। কিন্তু আমার পক্ষে একা কিছু করা সম্ভব হচ্ছে না।’’ সিরাম ইনস্টিউটের সিইও-র মন্তব্য, ‘‘এমন পরিস্থিতিতে পড়তে চাই না যেখানে আপনি নিজের কাজ যথাসাধ্য করার চেষ্টা করছেন, কিন্তু অন্যদের দাবি পূরণ করতে পারছেন না। আর তাঁরা কী করবেন, সেটাও বুঝতে
পারছেন না।’’

এই পরিস্থিতিতে গত কালই পুনাওয়ালা বৈঠকে বসেন তাঁর সংস্থার সহযোগী অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় এবং ব্রিটিশ-সুইডিশ সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রতিনিধিদের সঙ্গে। পরে পুনাওয়ালার টুইট, ‘‘ব্রিটেনে আমাদের সহযোগীদের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। এ সঙ্গেই বলতে চাইছি, পুণেতে কোভিশিল্ডের উৎপাদন জোরকদমে এগোচ্ছে। কয়েক দিনের মধ্যেই ভারতে ফিরে এই উৎপাদনের বিষয়টি পর্যালোচনা করব।’’

Advertisement

ভারতে ১৮ থেকে ৪৫ বছর বয়সিদের জন্য করোনা প্রতিষেধক দেওয়ার কথা ঘোষণা করার পরে উপযুক্ত জোগান না থাকায় সঙ্কট প্রবল হয়ে উঠেছে। উত্তরপ্রদেশ, ছত্তীসগঢ়, মহারাষ্ট্র এই পর্যায়ের ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু করলেও দেশের অধিকাংশ রাজ্যেই সেই কর্মসূচি আটকে রয়েছে। সঙ্কট কী ভাবে কাটানো যেতে পারে, তা নিয়েই লন্ডনে বসে সহযোগীদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন বিশ্বের সর্ববৃহৎ ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারী সংস্থার সিইও।

Advertisement