×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

১৯ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া ছাত্রীর দেহ মিলল দিদির রেফ্রিজারেটরে!

সংবাদ সংস্থা
জাগ্রেব ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৫:৩৪
গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

গ্রাফিক: তিয়াসা দাস

১৯ বছর আগে হারিয়ে গিয়েছিলেন ছাত্রী। তন্নতন্ন করে খুঁজেও পাওয়া যায়নি তাঁকে। হারিয়ে যাওয়ার আগে বাবাকে জানিয়েছিলেন, ক্রুজে কাজ করতে চান তিনি। জানিয়েছিলেন তার স্বপ্নের শহর প্যারিসে বসবাস করতে চাওয়ার ইচ্ছাও। অবশেষে দীর্ঘ ১৯ বছর পর সেই মহিলার মৃতদেহ পাওয়া গেল তাঁরই বোনের রেফ্রিজারেটরের ভিতর থেকে! চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি, ক্রোয়েশিয়ায়। উত্তর ক্রোয়েশিয়ার মালা সাবোটিচা অঞ্চল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে রেফ্রিজারেটরের মধ্যের দেহটি।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, ২০০০ সালে জেসমিনা ডমিনিকা নামের সেই ছাত্রী যখন হারিয়ে যান, তখন তাঁর বয়স ছিল মাত্র ১৮ বছর। আচমকাই তিনি উধাও হয়ে যান। তাঁর বড় দিদির বয়স তখন ছিল ২৩। জেসমিনা সেই সময় জাগ্রেবে পড়াশোনা করছিলেন। কিন্তু দীর্ঘ দিন তাঁর কোনও খোঁজ না পেলেও পুলিশে জানানো হয়নি কিছু। অবশেষে প্রায় ৫ বছর পর জেসমিনার পরিবারের পক্ষ থেকে পুলিশে অভিযোগ জানানো হয়।

পুলিশের সন্দেহ, ওই রেফ্রিজারেটরে লুকিয়ে রাখার আগে জেসমিনাকে খুন করা হয়েছিল। তবু পোস্টমর্টেম রিপোর্ট না পাওয়া অবধি এখনই নিশ্চিত হয়ে কিছু বলতে রাজি হয়নি পুলিশ কর্তৃপক্ষ।

Advertisement

আরও পড়ুন: এ বার আত্মঘাতী হামলা পাক কনভয়ে, নিহত ৯ পাক সেনা, আহত ১১

ওই মহিলার খুনের তদন্তের সূত্র এক মহিলাকে নিজের হেফাজতে নিয়েছে ক্রোয়েশিয়ার পুলিশ। সেই মহিলার পরিচয় এখনও অবধি গোপন রাখা হলেও, স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী তিনি আর কেউ নন, ওই মৃত মহিলার দিদিই।

আরও পড়ুন: খুনের ‘মিশন’ ছিল প্রাক্তন গোয়েন্দার, দাবি বইয়ে

Advertisement