Advertisement
১৩ এপ্রিল ২০২৪
imran khan

Imran Khan: গদিচ্যুত ইমরানের সিংহাসনে বসতে চলেছেন সদ্য প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা, কে এই শাহবাজ

শাহবাজ পঞ্জাব প্রদেশে তিন বার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। দাদা নওয়াজ দেশ ছাড়ার পরে পাকিস্তান মুসলিম লিগের প্রেসিডেন্টের আসনে বসেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে শাহবাজ শরিফ।

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে শাহবাজ শরিফ। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
ইসলামাবাদ শেষ আপডেট: ১০ এপ্রিল ২০২২ ০৪:৩৩
Share: Save:

অনাস্থা ভোটের আগেই পাক ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি ছেড়ে বেরিয়ে যান তেহরিক-ই-ইনসাফের সাংসদরা। ভবিষ্যৎ আঁচ করে অ্যাসেম্বলিতে আসেননি খোদ ইমরান। এর পর অনাস্থা ভোটে ইমরানের বিরুদ্ধে ১৭৪টি ভোট পড়ে। ইমরান সরকারের পতন হওয়ার পর প্রধান বিরোধী দলনেতা শাহবাজ শরিফকে অভিনন্দন জানান সদ্য স্পিকারের আসনে বসা আয়াজ সাদিক। রবিবার সকালেই বিরোধীরা জানিয়ে দিলেন, শাহবাজই পাকিস্তানের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী। সোমবার ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি নতুন প্রধানমন্ত্রী বেছে নেবে। এখনও পর্যন্ত শাহবাজ ছাড়া আর কেউ প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হননি। স্বভাবতই তাঁরই পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী হওয়া এক প্রকাশ নিশ্চিত।

প্রথম থেকেই জল্পনা ছিল, ইমরান পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী শাহবাজই হবেন। পুরো নাম মিয়া মহম্মদ শাহবাজ শরিফ। অনাস্থা ভোটে ইমরানকে গদিচ্যুত করার পর শাহবাজকে কিছু বলার অনুরোধ করা হয়। অ্যাসেম্বলিতে গলা উঁচিয়েই শাহবাজ জানান, কোনও মতেই বদলার রাজনীতিতে বিশ্বাস করেন না তিনি। এই ফল পাক জনগণের ইচ্ছেতেই হয়েছে। পাকিস্তানে সুদিন ফিরতে চলেছে বলেও মন্তব্য করেন, প্রধানমন্ত্রিত্বের সবার আগে থাকা শাহবাজ।

পাক রাজনীতিতে বিরোধী দলনেতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়ে প্রধানমন্ত্রী পদের দাবিদার হওয়া এই শাহবাজ কে? তিনি প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী তথা মুসলিম লিগের জনপ্রিয় নায়ক নওয়াজ শরিফের আপন ভাই। পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর পদেও বহাল ছিলেন তিনি। শাহবাজ পঞ্জাব প্রদেশের সব থেকে দীর্ঘ মেয়াদের মুখ্যমন্ত্রীও বটে। তিনি পঞ্জাব প্রদেশে তিন বার মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন। দাদা নওয়াজ দেশ ছাড়ার পরে পাকিস্তান মুসলিম লিগের প্রেসিডেন্টের আসনে বসেন তিনি। তখন থেকেই ভাইঝি মরিয়াম শরিফকে নিয়ে দল সামলাচ্ছিলেন। ২০১৮ সালের ১৩ অগস্ট তিনি ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির সদস্য হন। এ হেন শাহবাজকেই নিয়ে পাকিস্তানে জল্পনা তুঙ্গে। আগামী ১২ এপ্রিল ফের বসবে ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির অধিবেশন। এই অধিবেশনেই নয়া পাক প্রধানমন্ত্রীর নাম ঘোষণা হওয়ার কথা। তবে কূটনীতিবিদদের একাংশের দাবি, শাহবাজকে আগামী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মাথায় রেখেই ইমরানের বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের দাবি তুলেছিলেন বিরোধীরা। ইমরান-পতনের পর সোমবার সেই ঘোষণাই পাকাপাকি ভাবে হওয়ার কথা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE