Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

ওসামাকে শহিদ আখ্যা, ‘তালিবান খান’ তকমা জুটল ইমরানের

সংবাদ সংস্থা
ইসলামাবাদ ২৬ জুন ২০২০ ১৫:০৩
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

সন্ত্রাসে মদত জোগানোর অভিযোগে যখন জেরবার গোটা দেশ, ঠিক সেইসময় প্রকাশ্যে ওসামা বিন লাদেনকে ‘শহিদ’ বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তা নিয়ে উত্তাল পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ রাজনীতি। শক্ত হাতে সন্ত্রাস দমন না করে, এ ভাবে এক জন আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদীকে শহিদ বলে উল্লেখ করায় ইমরানের তীব্র সমালোচনা করেছেন বিরোধী শিবিরের রাজনীতিকরা। তাঁদের অভিযোগ, এমন মন্তব্য করে সন্ত্রাসের প্রতি তোষণনীতিকেই প্রকাশ্যে সমর্থন করেছেন ইমরান।

বৃহস্পতিবার দেশের পার্লামেন্ট ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে দাঁড়িয়ে ইমরান বলেন, “মার্কিন সেনাবাহিনী যখন অ্যাবোটাবাদে ঢুকে ওসামা বিন লাদেনকে হত্যা করে, তাঁকে শহিদ করে, তখন বিশ্বের সর্বত্র পাকিস্তানিরা খুবই বিব্রত বোধ করেছিলেন।’’

ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে দাঁড়িয়েই সেইসময় ইমরানের তীব্র সমালোচনা করেন বিরোধী দলনেতা তথা দেশের প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী খোয়াজা আসিফ। তিনি বলেন, ‘‘ওসামা বিন লাদেন এক জন সন্ত্রাসবাদী ছিলেন। হাজার হাজার মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী ছিলেন তিনি। আমাদের দেশটাকে পুরো ধ্বংস করে দিয়েছিলেন। আজ তাঁকেই কিনা শহিদ বলছেন প্রধানমন্ত্রী।’’

আরও পড়ুন: এশিয়ায় চিনা সেনাবাহিনীর মোকাবিলায় সেনা পাঠাচ্ছে আমেরিকা, জানালেন পম্পেয়ো​

Advertisement

বিলাবলের টুইট।

ওসামাকে নিয়ে ইমরানের এই মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন পাকিস্তান পিপলস পার্টির নেতা তথা সন্ত্রাসবাদীদের হাতে নিহত দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর ছেলে বিলাবল ভুট্টো। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘‘ওসামা বিন লাদেনকে শহিদ বলে উল্লেখ করে সন্ত্রাসের প্রতি তোষণনীতির ইতিহাসকেই সমর্থন করেছেন ইমরান। তাঁর সরকারের কার্যকালেই পেশোয়ার আর্মি পাবলিক স্কুলের হামলাকারীরা জেল থেকে পালিয়েছে। ড্যানিয়েল পার্লের হত্যায় যারা জড়িত ছিল, তারাও ইমরানের আমলেই রেহাই পেয়েছে। ইমরান সাপের গালেও চুমু খাচ্ছেন, ব্যাঙের গালেও চুমু খাচ্ছেন।’’

পাকিস্তান পিপলস পার্টির সেনেটর শেরি রহমান ইমরানের উদ্দেশে বলেন বলেন, ‘‘ওসামার জন্যই আজও সন্ত্রাসের শিকার পাকিস্তান। ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে দাঁড়িয়ে তাঁকেই কিনা শহিদ বলে বসলেন আপনি? ওসামা বিন লাদেন প্রধানমন্ত্রীর আদর্শ হতে পারেন, কিন্তু দেশের মানুষের নন। তিনি গোটা রাষ্ট্রের শত্রু ছিলেন এবং থাকবেন।’’

সেনেটর মুস্তাফা নওয়াজ খোকর আবার ইমরানকে ‘তালিবান খান’ বলে কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, ‘‘লাদেন শহিদ হলে, আলকায়দার হামলায় আমাদের সেনাবাহিনীর যাঁরা প্রাণ হারান, তাঁদের কী বলা হবে?’’

আরও পড়ুন: গালওয়ান নিয়ে ফের চড়া সুর দু’দেশের​

কিছু লোকের সন্ত্রাসী কাজকর্মের জেরেই গোটা বিশ্বে বৈষম্যের শিকার মুসলিমরা। ওসামাকে শহিদ বলে উল্লেখ করে ইমরান তাঁদের অস্বস্তি আরও বাডিয়ে দিলেন বলে মন্তব্য করেন সে দেশের বিশিষ্ট সমাজকর্মী মীনা গবীনাও। টুইটারে তিনি লেখেন, ‘‘সন্ত্রাসবাদের জেরে বিশঅবের সর্বত্র বৈষম্যের শিকার মুসলিমরা। কঠিন লড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে তাঁদের। আর সেখানে কিনা ওসামা বিন লাদেনকে শহিদ বলে বসলেন আমাদের প্রধানমন্ত্রী।’’

ইমরান খানের মন্তব্য নিয়ে ইসলামাবাদের তরফে এখনও পর্যন্ত কোনও সাফাই দেওয়া হয়নি। তবে এই প্রথম নয়, এর আগেও ওসামা বিন লাদেনকে নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন তিনি। পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই ওসামা সম্পর্কে গোপন তথ্য না দিলে ওয়াশিংটন তাঁর হদিশ পেত না বলে গত বছর মার্কিন সফরের সময় মন্তব্য করেন তিনি।

আরও পড়ুন

Advertisement