Advertisement
১৯ জুলাই ২০২৪
Pakistan General Election 2024

পাক সুপ্রিম কোর্টে জামিন পেলেন ইমরান, এ বার কি ভোটের মাঠেও ‘কামব্যাক ইনিংস’ ক্যাপ্টেনের?

সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে ইমরানের ভোটে লড়ার সম্ভাবনা উজ্বল হল। তাঁর সমর্থকদের দাবি, ক্রিকেটের মতোই রাজনীতির ‘ঘূর্ণি পিচেও’ এ বার প্রত্যাবর্তন ঘটবে ‘ক্যাপ্টেন’-এর।

প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। — ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২২ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৫:১০
Share: Save:

তোশাখানা মামলায় নিম্ন আদালতের দেওয়া সাজায় আগেই স্থগিতাদেশ দিয়েছিল ইসলামাবাদ হাই কোর্ট। এ বার পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্ট বিচারাধীন ‘রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য ফাঁস’ মামলায় জেলবন্দি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করল। সাধারণ নির্বাচনের আগে প্রাক্তন পাক ক্রিকেট অধিনায়ক এবং তাঁর দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এর কাছে শীর্ষ আদালতের এই রায় ‘বড় জয়’ বলে মনে করা হচ্ছে। ইমরানের পাশাপাশি ওই মামলায় তাঁর সহ-অভিযুক্ত, প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশির জামিনের আবেদনও মঞ্জুর করেছে পাক সুপ্রিম কোর্ট।

চলতি বছরের অগস্টে ইসলামাবাদের বিশেষ আদালত তোশাখানা মামলায় তিন বছরের জেলের সাজা ঘোষণার পরেই ইমরানের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। এর পর ইসলামাবাদ হাই কোর্ট সেই সাজায় স্থগিতাদেশ দিয়ে ইমরানের জামিন মঞ্জুর করেছিল। কিন্তু রাষ্ট্রীয় গোপন তথ্য ফাঁসের অভিযোগে ‘অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্ট’ (ওএসএ)-এ মামলা চলায় তিনি মুক্তি পাননি। এই পরিস্থিতিতে বুধবার পিটিআই নেতৃত্ব জানিয়েছিলেন, আদিয়ালা জেল থেকেই লাহোর, মিয়াঁওয়ালি এবং ইসলামাবাদে তিনটি কেন্দ্রে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তিনি।

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি পাক পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ‘ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি’র নির্বাচন। ইমরান জেলে থাকলেও তাঁর দল পিটিআই ভোটে অংশ নেবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল নভেম্বরে। ওএসএ মামলার কারণে ইমরান মুক্তি না পাওয়ায় নির্বাচনী প্রতীক ‘ব্যাট’ বজায় রাখতে পিটিআইয়ের সাংগঠনিক নির্বাচন সেরে ফেলার নির্দেশ দিয়েছিল নির্বাচন পরিচালনকারী শীর্ষ সংস্থা ‘ইলেকশন কমিশন অব পাকিস্তান’ (ইসিপি)। সেই নির্দেশ মেনে চলতি মাসের গোড়ায় পিটিআই-এর নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন ইমরান ঘনিষ্ঠ নেতা গোহর আলি খান। ১৯৯৬ সালে পিটিআই তৈরির পরে এই প্রথম বার ইমরানের পরিবর্তে দলীয় চেয়ারম্যান হিসাবে অন্য কাউকে নির্বাচিত করা হয়।

পাক সুপ্রিম কোর্টের শুক্রবারের রায়ের ফলে নির্বাচনী রাজনীতিতে ইমরানের প্রত্যাবর্তন কার্যত নিশ্চিত হল বলে আইন বিশেষজ্ঞদের একাংশে মত। তাঁর সমর্থকেরা ইতিমধ্যেই বলতে শুরু করেছেন, তিনি দশক আগে অবসর ভেঙে ২২ গজের লড়াইয়ে ফিরে যে ভাবে পাকিস্তানকে বিশ্বকাপ জিতিয়েছিলেন তিনি, এ বার ভোটের ময়দানেও তার ‘ছায়া’ দেখা যাবে। ২০২২ সালে এপ্রিলে দলীয় পার্লামেন্ট সদস্যদের একাংশের বিদ্রোহের জেরে প্রধানমন্ত্রিত্বের ‘ইনিংসের’ মাঝপথে ‘রান আউট’ হওয়ার সময় ইমরান জানিয়েছিলেন, তিনি যড়যন্ত্রকারীদের সামনে মাথা নত করবেন না। আবার প্রত্যাবর্তন করবেন স্বমহিমায়। ৮ ফেব্রুয়ারি কি পিটিআই-কে ‘নির্বাচনী কাপ’ জেতাতে পারবেন তিনি?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE