Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

ভ্যাকসিন বণ্টনের প্রস্তুতি আমেরিকায়

ওয়াশিংটন
সংবাদ সংস্থা ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৫:১৫
ছবি রয়টার্স।

ছবি রয়টার্স।

অক্টোবরেই যে আমেরিকার বাজারে করোনা-প্রতিষেধক আসতে চলেছে, সেই খবর বাতাসে ভাসছিল কয়েক দিন ধরে। বুধবার আমেরিকার ‘সেন্টার ফর ডিজ়িজ় কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ (সিডিসি) ভ্যাকসিন বিলি সংক্রান্ত নির্দেশিকা প্রকাশ করার পরে সেই সম্ভাবনা জোরদার হল।

সিডিসি সূত্রের খবর, অক্টোবরের শেষেই দেশে আসতে চলেছে ওই ভ্যাকসিন। তবে প্রথম দিকে ভ্যাকসিনের সংখ্যা সীমিত হতে পারে। সে কারণে, সুষ্ঠু ভাবে তা বিলির জন্য প্রাথমিক রূপরেখা তৈরি করতে বিভিন্ন প্রদেশের স্বাস্থ্যকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে সিডিসি।

একটি প্রথম সারির মার্কিন দৈনিকে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, আমেরিকার ৫০টি প্রদেশ এবং পাঁচটি বড় শহরের প্রশাসনের কাছে ওই নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। নাম না-করলেও আপাতত দু’টি ভ্যাকসিন বাজারে আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে সিডিসি। আর তাকে ঘিরেই কৌতূহল বাড়ছে। জানা গিয়েছে, ওই দু’টি ভ্যাকসিন মাইনাস ৭০ ডিগ্রি এবং মাইনাস ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সংরক্ষণ করা হয়। ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা ফাইজ়ার এবং মর্ডানার তৈরি প্রতিষেধক দু’টিও ঠিক এই তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করতে হয়। ফলে এই দুই সংস্থার তৈরি প্রতিষেধকের বাজারে আসার সম্ভাবনাই জোরদার হচ্ছে। আরও জানা গিয়েছে, সরকারি ভাবে বিনামূল্যে মিলবে ওই প্রতিষেধক। যাঁদের জীবনের ঝুঁকি বেশি, তাঁদেরকে প্রথমে ওই প্রতিষেধক দেওয়া হবে। পাশাপাশি চিকিৎসক, নার্স, হাসপাতাল কর্মী, নিরাপত্তা কর্মীদের মতো প্রথম সারির

Advertisement

করোনা-যোদ্ধাদেরও প্রাথমিক তালিকায় রাখা হয়েছে।

রাশিয়া, চিনের পর আমেরিকা সম্প্রতি বাজারে ভ্যাকসিন আনার কথা ঘোষণা করেছে। তবে ট্রায়াল শেষের আগেই এ ভাবে বিভিন্ন প্রতিষেধককে ছাড় দেওয়ার ঘটনায় আশঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। কিন্তু ভ্যাকসিনের নিরাপত্তা ও কার্যকারিতা প্রমাণের আগেই এ ভাবে ঝুঁকি নেওয়ার কারণ কী? অনেকের মতে, নভেম্বরে আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই একটা চমক দিতে চাইছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সে কারণেই অক্টোবরে প্রতিষেধক আনার জোর তোড়জোড় চলছে।

প্রতিষেধক তৈরির দৌড়ে আরও নতুন নতুন নাম উঠে আসছে বিশ্ব জুড়ে। বৃহস্পতিবার একটি নতুন প্রতিষেধকের ট্রায়াল শুরুর কথা ঘোষণা করেছে ফরাসি ওষুধ প্রস্তুতকারী সংস্থা সানোফি এবং তার ব্রিটিশ সহযোগী জিএসকে। প্রোটিন নির্ভর এই প্রতিষেধকের প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ে ট্রায়াল শুরু করেছে তারা।

আরও পড়ুন

Advertisement