Advertisement
২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Russia-Ukraine War

কৃষ্ণসাগরে পরমাণু বোমা পরীক্ষা করতে সক্রিয় পুতিন! পরের নিশানা কি তবে ইউক্রেন?

নরেন্দ্র মোদী সরকার বুধবার রাতে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ পরিস্থিতির অবনতির সম্ভাবনার কথা জানিয়ে ভারতীয় নাগরিকদের দ্রুত ইউক্রেন ছাড়ার ‘পরামর্শ’ দিয়েছে।

পরমাণু হামলার আশঙ্কা উস্কে দিলেন পুতিন।

পরমাণু হামলার আশঙ্কা উস্কে দিলেন পুতিন। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
লন্ডন শেষ আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০২২ ১২:১০
Share: Save:

প্রস্তুতি প্রায় চূড়ান্ত। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এ বার কৃষ্ণসাগরে ইউক্রেনের উপকূলে পরমাণু বোমা পরীক্ষার আয়োজন করতে চলেছেন বলে অভিযোগ উঠল। মস্কোর সূত্রের ভিত্তিতে ব্রিটেনের একটি পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, পশ্চিমী দুনিয়ার সামনে শক্তি প্রদর্শনের জন্য কৃষ্ণসাগরের গভীরে পরমাণু বিস্ফোরণ ঘটাতে পারে রাশিয়া।

গত ২৩ সেপ্টেম্বর ইউক্রেনের চার অধিকৃত অঞ্চল— ডনেৎস্ক, লুহানস্ক (একত্রে যারা ডনবাস নামে পরিচিত) জ়াপোরিজিয়া এবং খেরসনে গণভোটের ঘোষণা করতে গিয়ে পুতিন জানিয়েছিলেন, প্রয়োজনে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহারে তাঁরা পিছপা হবেন না। এর পর গণভোটের আয়োজন করে ইউক্রেনের চারটি অঞ্চলকে রাশিয়ার সঙ্গে জুড়ে নেন তিনি।

বুধবার ইউক্রেনের প্রায় ১৫ শতাংশ ওই চারটি অঞ্চলে মার্শাল ল’ জারি করেছেন পুতিন। এই পরিস্থিতিতে নতুন করে অশান্তির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেশ চলতি সপ্তাহে আমেরিকা গিয়ে জানিয়েছেন নতুন করে যুদ্ধ পরিস্থিতির অবনতির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ইতিমধ্যেই পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার নিয়ে মস্কোকে হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।

জ়াপোরিজিয়া, খেরসন-সহ কিছু এলাকায় গত ১০ অক্টোবর থেকে নতুন করে হামলা শুরু করেছে রুশ সেনা। সামরিক লক্ষ্যবস্তুর পাশাপাশি নির্বিচারের ঘনবসতিপূর্ণ এলাকাতেও ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ। এই পরিস্থিতিতে বুধবার রাতে যুদ্ধ পরিস্থিতির অবনতির কথা জানিয়ে ভারতীয় নাগরিকদের ইউক্রেন ছাড়ার ‘পরামর্শ’ দিয়েছে নরেন্দ্র মোদী সরকার।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE