×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

রানির সায় না-নিয়েই কি মেয়ের নাম ‘লিলিবেট’

শ্রাবণী বসু
লন্ডন ১০ জুন ২০২১ ০৬:৪৮
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

ব্রিটেনের রাজপরিবারের জটিল টানাপড়েনে এ বার নাম জড়াল সাত দিন বয়সি একরত্তির।

রাজকুমার হ্যারি ও তাঁর স্ত্রী মেগান সদ্যোজাত শিশুকন্যার নাম রেখেছেন লিলিবেট ‘লিলি’ ডায়ানা মাউন্টব্যাটেন-উইনসর। শুক্রবার ক্যালিফর্নিয়ার এক হাসপাতালে তার জন্ম হয়। রবিবার ডিউক ও ডাচেস অব সাসেক্স আনুষ্ঠানিক ভাবে সেই খবর ঘোষণা করতেই শুরু হয় টানাপড়েন। ওই বিবৃতিতে হ্যারিরা জানিয়েছেন, ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজ়াবেথের সম্মানে তাঁরা মেয়ের নাম রেখেছেন লিলিবেট। এটি রানির ডাকনাম। পিতামহ পঞ্চম জর্জ তাঁকে আদর করে এই নামেই ডাকতেন। শোনা যায়, ছোটবেলায় নিজের নামটাই ঠিক করে উচ্চারণ করতে পারতেন না রানি। বলতেন ‘লিলিবেট’। সেই ডাক নকল করে পিতামহ তাঁকে এই নামে ডাকতে শুরু করেন। রানির নিজেরও খুব প্রিয় তাঁর ডাকনামটি। পরিবারের ঘনিষ্ঠ বৃত্তে এমনকি রানির স্বামীও তাঁকে লিলিবেট বলেই ডাকতেন। কিন্তু রাজপরিবারের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নেওয়া হ্যারি-মেগান রানির নামেই সন্তানের নাম রাখায় ক্ষুব্ধ রাজপরিবারের অনুরাগীদের একাংশ। নানা রকম ব্যাঙ্গাত্মক মন্তব্যে ভরে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। এক সাংবাদিক লেখেন, ‘‘তার থেকে বরং মেয়ের নাম ‘জর্জিনা ফ্লয়েডিনা’ রাখতে পারতেন মেগানরা। ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনের প্রতি সমর্থন জানিয়ে!’’ প্রথম সারির এক সংবাদপত্রে এই ‘বর্ণবিদ্বেষী’ মন্তব্য প্রকাশিত হওয়ার পরে অবশ্য বরখাস্ত করা হয়েছে সেই সাংবাদিককে।

ব্রিটেনের এক প্রথম সারির দৈনিকের দাবি, নামকরণের আগে রানির অনুমতি নেননি হ্যারিরা। রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রে তারা এই খবর জানতে পেরেছে। তবে রাজপরিবারের এক মুখপাত্র জানান, ‘‘আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আগে পরিবারকে খুশির খবরটি জানান হ্যারি। রানিকেই প্রথম ফোন করেন তিনি। রানি সম্মতি দিলে নবজাতকের নাম লিলিবেট রাখার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।’’

Advertisement

খবরটি প্রকাশের ঘণ্টা খানেকের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন রাজকুমার হ্যারি। সাসেক্সদের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ওমিড স্কোবির দাবি, সন্তানের জন্মের খবর রানিকেই প্রথম জানিয়েছেন হ্যারি-মেগান। রানির সম্মতি ক্রমেই মেয়ের নাম রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হ্যারিও।

অনেকেই অবশ্য বলছেন, শুরু থেকেই সংবাদমাধ্যমের একাংশের নিশানায় রয়েছেন হ্যারিরা। তাঁরা যা-ই করেন, সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। ব্রিটেনের রাজপরিবারের ইতিহাসবিদ কেট উইলিয়ামস টুইট করে বলেন, ‘‘রাজকুমারী ইউজিন (রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের মেজ ছেলে অ্যান্ড্রুর মেয়ে) যদি তাঁর মেয়ের নাম লিলিবেট রাখতেন, সকলে বলত কী কিউট!’’

Advertisement