Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
Afghanistan War

Crisis in Afghanistan: খুন করেনি তালিবান, মারধর করেছে, টুইট করে জানালেন ‘মৃত’ সাংবাদিক

জিয়ার ইয়াদের দাবি, কাবুলের নিউ সিটি এলাকায় গিয়েছিলেন খবর সংগ্রহ করতে। তখনই তালিবান তাঁদের মারধর করে। ক্যামেরা ভেঙে দেওয়া হয়। ছিনিয়ে নেওয়া হয় মোবাইল।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

সংবাদ সংস্থা
কাবুল শেষ আপডেট: ২৬ অগস্ট ২০২১ ১২:২৭
Share: Save:

আফগানিস্তানের টোলো নিউজের সাংবাদিকের মৃত্যুর দাবি ঘিরে ধন্দ। প্রথমে আফগানিস্তানের বেসরকারি নিউজ চ্যানেল টোলো নিউজ টুইটে জানায়, তাদের সাংবাদিক জিয়ার ইয়াদ খানকে খুন করেছে তালিবান। তার সামান্য পরে সেই সাংবাদিক নিজেই টুইটে জানান, তালিবান হামলা হয়েছিল ঠিকই, কিন্তু তিনি বেঁচে আছেন।

Advertisement

টুইট জিয়ারের দাবি, ‘কাবুলের নিউ সিটি এলাকায় গিয়েছিলাম খবর সংগ্রহ করতে। তখনই তালিবান আমাদের মারধর করে। ক্যামেরা ভেঙে দেওয়া হয়। ছিনিয়ে নেওয়া হয় মোবাইল। তার পরই আমার মৃত্যুর ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়ে। একটি ল্যান্ড ক্রুজারে এসে তালিবান আমাদের সামনে দাঁড়ায়। তার পর বন্দুক উঁচিয়ে আমাদের মারধর করে।’

অন্য একটি টুইটে তিনি লেখেন, ‘আমি এখনও বুঝতে পারছি না কেন তালিবান আমার সঙ্গে এ রকম ব্যবহার করল। তালিবান নেতারা এই খবর পেয়েছেন নিশ্চয়ই। হামলাকারীরা এখনও গ্রেফতার হয়নি। যা এ দেশে মত প্রকাশের অধিকারের পরিপন্থী।’

স্থানীয় সূত্রে খবর, কাবুলে দারিদ্র ও কর্মসংস্থানের উপর একটি খবর করছিলেন জিয়ার। আফগানিস্তানে দ্বিতীয় বার তালিবান ক্ষমতায় আসার পর থেকেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনা বেড়ে চলেছে। জুলাই মাসে কন্দহরে তালিবানি আক্রমণে প্রাণ হারান পুলিত্জার পাওয়া ভারতীয় চিত্র সাংবাদিক দানিশ সিদ্দিকি।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.